যুদ্ধে জড়াল আর্মেনিয়া-আজারবাইজান, নিহত ২
প্রকাশ : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৮:২১
যুদ্ধে জড়াল আর্মেনিয়া-আজারবাইজান, নিহত ২
আন্তর্জাতিক ড্স্কে
প্রিন্ট অ-অ+

বিতর্কিত নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চল নিয়ে যুদ্ধে জড়িয়েছে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজান। ইতিমধ্যে আজারবাইজানের একটি হেলিকপ্টার গুলি করে ভূপাতিত করেছে আর্মেনিয়া। খবর বিবিসির।


আর্মেনিয়া বলছে, আজারবাইজান প্রথমে বিমান ও কামান দিয়ে হামলা শুরু করেছে। পরবর্তীতে তারা সামরিকভাবে এর জবাব দেয়া শুরু করেছে এবং সামরিক বাহিনী ওই অঞ্চলে হামলার জন্য সংঘবদ্ধ হয়েছে।


অপরদিকে আজারবাইজান বলছে, চারদিক থেকে শুরু হওয়া গোলাবর্ষণের জবাব দিয়েছে তারা। দু'পক্ষই জানিয়েছে যে, এই সংঘাতে বেসামরিক হতাহতের ঘটনা ঘটেছে।


আর্মেনিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, স্থানীয় সময় সকাল ৮টা ১০ মিনিটে রাজধানী স্তেপানাকের্তসহ বেসামরিক এলাকাগুলোতে হামলা শুরু হয়। তারা এ পর্যন্ত দুটি হেলিকপ্টার, তিনটি ড্রোন ও তিনটি ট্যাঙ্ক ধ্বংস করেছে।


বিবৃতিতে আরো বলা হয়েছে, আমাদের দায়িত্ব হচ্ছে সমানুপাতিকভাবে সাড়া দেয়া এবং পুরো পরিস্থিতির দায়-দায়িত্ব আজারবাইজানের সামরিক-রাজনৈতিক নেতৃত্বের ওপর।


কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, দু'পক্ষের এই সংঘাতে এখন পর্যন্ত এক নারী এবং এক শিশুর মৃত্যুর খবর নিশ্চিত হওয়া গেছে। আরো হতাহতের বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে পরবর্তীতে প্রকাশ করা হবে।


এর আগে আর্মেনিয়া সরকার মার্শাল ল’ এবং পুরো সেনাবাহিনী মোতায়েনের ঘোষণা দেয়। আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী নিকোল পাশিনিয়ান এক বিবৃতিতে বলেন, আমাদের পবিত্র জন্মভূমিকে রক্ষায় প্রস্তুত হতে হবে। অপরদিকে, আজারবাইজানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বেশ কয়েকটি গ্রামে তীব্র গোলাবর্ষণে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।


আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম জানিয়েছে, প্রায় চার দশক ধরে নাগোরনো-কারবাখ অঞ্চল নিয়ে প্রতিবেশী দেশ দু'টির মধ্যে বিরোধ চলছে। প্রায়ই এই বিরোধ সংঘাতে রূপ নিচ্ছে। এতে বহু বেসামরিক প্রাণ হারাচ্ছে। নাগোরনো-কারবাখ অঞ্চলকে আন্তর্জাতিকভাবে আজারবাইজানের এলাকা হিসেবে স্বীকৃতি দেয়া হলেও এটি এখনো আর্মেনিয়ান নৃগোষ্ঠীর নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।


গত জুলাইয়ে সীমান্তে দু'পক্ষের মধ্যে লড়াইয়ে কমপক্ষে ১৬ জন নিহত হয়। এর পরেই আজারবাইজানের রাজধানী বাকুতে বিশাল জনসমাবেশ হয় যা কয়েক বছরের মধ্যে সবচেয়ে বড় বলে উল্লেখ করা হয়েছে। সমাবেশে বিতর্কিত ওই অঞ্চলে পূর্ণ সামরিক অভিযান এবং তা দখল করে নেওয়ার দাবি তোলা হয়।


বিবার্তা/আবদাল

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com