ক্যারিবীয় উপসাগরে যুদ্ধজাহাজ মোতায়েন যুক্তরাষ্ট্রের, ইরানের হুঁশিয়ারি
প্রকাশ : ২১ মে ২০২০, ১৯:১৪
ক্যারিবীয় উপসাগরে যুদ্ধজাহাজ মোতায়েন যুক্তরাষ্ট্রের, ইরানের হুঁশিয়ারি
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

যুক্তরাষ্ট্র ক্যারিবীয় উপসাগরে যুদ্ধজাহাজ মোতায়েন করায় দেশটিকে হুঁশিয়ারি দিয়েছে ইরান।


ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভাদ জারিফ বলেছেন, বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলোর সঙ্গে বৈধ বাণিজ্য চালিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করার কোনো অধিকার নেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের। ইরানি তেলবাহী ট্যাংকারের ওপর হুমকি মানে পুরো বিশ্বের জন্য হুমকি।


আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম জানিয়েছে, ইরান মার্কিন নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে হাজার হাজার টন গ্যাসোলিন রপ্তানি করছে দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ভেনেজুয়েলায়। অন্তত পাঁচটি ট্যাংকারে করে ভেনিজুয়েলায় ইরানি তেল নেয়া হচ্ছে। মার্কিন নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে এসব ট‍্যাংকার আটলান্টিক মহাসাগর পাড়ি দিয়ে ভেনেজুয়েলায় পৌঁছাবে।


তেল ট্যাংকার রপ্তানি ক্ষেত্রে ইরান ট্যাংকারগুলোতে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে রেখেছে এবং এ সমস্ত ট্যাংকার মার্কিন নৌবাহিনীর চোখের সামনে দিয়ে ভেনেজুয়েলার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। তবে মার্কিন সেনারা ইরানি জাহাজকে বাধা দিতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে ইরানি জাহাজকে বাধা দেয়ার জন্য আমেরিকা ইউএসএস ডেট্রয়েট, ইউএসএস ল্যাসেন, ইউএসএস প্রিবেল এবং ইউএসএস ফারাগাট নামের যুদ্ধজাহাজ ক্যারিবীয় উপসাগরে মোতায়েন করে রেখেছে। এছাড়া বোয়িং পি-এইট পজিডন আকাশে বিমান টহল দিচ্ছে। এই ঘটনায় ওয়াশিংটনকে সতর্ক করে দিয়েছে ইরান।


জাভেদ জারিফ বলেন, বিশ্বব্যাপী বৈধ বাণিজ্য অব্যাহত রয়েছে। এই ধরনের বাণিজ্যে ব্যাহত করার অধিকার যুক্তরাষ্ট্রের নেই। মার্কিন সরকারের এই নীতি কেবল একটি বা দুটি বিশেষ দেশের জন্য হুমকি নয়; বরং পুরো বিশ্বের জন্য হুমকিস্বরূপ। যদি কোনো দেশ তার নিজস্ব নীতিমালার ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত নিতে এবং বৈধ বাণিজ্যকে ব্যাহত করতে পদক্ষেপ নিতে চায়; তবে অবশ্যই তীব্র প্রতিক্রিয়া মোকাবেলা করতে হবে দেশটিকে।


এর আগে গত রবিবার জাতিসংঘের সেক্রেটারি জেনারেল আন্তোনিও গুতেরেসকে লেখা এক চিঠিতে ক্যারিবীয় উপসাগরে মার্কিন যুদ্ধজাহাজ মোতায়েন করা নিয়ে সতর্ক করেছেন জারিফ। তিনি অভিযোগ করে লেখেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্য হলো, ভেনিজুয়েলায় তেল পৌঁছানোতে বাধা সৃষ্টি করা।


জারিফ গুতেরেসকে লেখেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এই ধরনের নীতি ও বেআইনি আচরণের বিরুদ্ধে নিজেদের নিরাপত্তার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণের অধিকার রয়েছে ইরানের।


বিবার্তা/আবদাল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com