তুরস্ককে যুক্তরাষ্ট্রের হুমকি, পাত্তাই দিচ্ছে না আঙ্কারা
প্রকাশ : ০৮ অক্টোবর ২০১৯, ১৯:৩৬
তুরস্ককে যুক্তরাষ্ট্রের হুমকি, পাত্তাই দিচ্ছে না আঙ্কারা
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে অভিযান চালালে তুরস্কের অর্থনীতি ধ্বংস করে দেয়া হবে বলে হুমকি দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।


ট্রাম্প বলেন, প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানকে বলেছি, আমার দেশের জনগণের কোনো ক্ষতি যেন না হয়। তারা যদি সীমা লঙ্ঘন করে তাহলে এর পরিণতি ভালো হবে না। পিকেকের সঙ্গে তুরস্কের বিরোধ বহু পুরানো। এজন্য প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা দায়ী। পিকেক-তুরস্ক যুদ্ধ তিনিই শুরু করে দিয়েছিলেন। খবর ইয়েনি শাফাকের।


তবে যুক্তরাষ্ট্রকে পাত্তাই দিচ্ছেনা তুরস্ক। সিরিয়ায় অভিযান চালানোর ব্যাপারে অটল আঙ্কারা।ইতিমধ্যে যুদ্ধের সরঞ্জাম পাঠানো হয়েছে সিরিয়া সীমান্তে।


এদিকে ট্রাম্প তুরস্ককে হুমকি দিলেও উত্তর সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করে নিয়েছেন তিনি।


তুরস্কের কুর্দি-বিরোধী অভিযান শুরুর আগে সোমবার সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় সামরিক ঘাঁটি থেকে নিজেদের সেনা প্রত্যাহার করে নেয় যুক্তরাষ্ট্র। নিরাপদ অঞ্চল গড়ে তুলতে এতদিন মার্কিন এবং তুর্কি সেনারা যৌথ টহল দিয়ে আসলেও এরদোয়ান সরকারের কুর্দি-বিরোধী অভিযানের ঘোষণার পর কারো পক্ষে অবস্থান না নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় ট্রাম্প প্রশাসন।


এতে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ায় ব্যক্ত করেছেন কুর্দি বিদ্রোহী গোষ্ঠী সিরিয়ান ডেমোক্র্যাটিক ফোর্স-এসডিএফ। মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের প্রতিবাদে এদিন বিক্ষোভ মিছিল বের করে তারা। তুর্কি সেনাদের হাত থেকে কুর্দিদের রক্ষায় যুক্তরাষ্ট্রকে সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের আহ্বান জানান বিক্ষোভকারীরা। নতুন করে সংঘাত সৃষ্টি হলে অঞ্চলেটিতে আবারো জঙ্গি গোষ্ঠী আইএসের উত্থানের আশঙ্কা করছেন তারা।


স্থানীয়রা বলছেন, যুদ্ধ ছড়িয়ে পড়লে এই অঞ্চলের মানুষ সবার আগে আক্রান্ত হবে। ঘর-বাড়ি ছেড়ে আমাদের পালিয়ে যেতে হবে। সিরিয়ায় নতুন করে সঙ্কট দেখা দেবে।


তবে তুরস্কের যেকোনো হামলা প্রতিহতের ঘোষণা দিয়েছে কুর্দি বিদ্রোহী গোষ্ঠী সিরিয়ান ডেমোক্র্যাটিক ফোর্স-এসডিএফ।


এসডিএফ এর মুখপাত্র গ্যাবরিয়েল কেনো বলেন, তুর্কি সেনাদের হামলা নতুন নয়। তারা বছরের পর বছর আমাদের ওপর হামলা চালিয়ে আসছে। তাদের হামলার সমোচিত জবাব দিতে এসডিএফ সদস্যরা পুরোপুরি প্রস্তুত।


মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের ঘটনায় ট্রাম্পের কঠোর সমালোচনা করেছেন খোদ রিপাবলিকান সিনেটর মিচ ম্যাককোনেল। রাশিয়া, ইরান এবং সিরিয়ার আসাদ সরকারকে সুবিধা দিতেই ট্রাম্প এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে মন্তব্য করেন তিনি।


বিবার্তা/আবদাল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com