বিদ্রোহ বিজেপিতে, অরুণাচলে দলত্যাগ ২৫ নেতা-মন্ত্রীর
প্রকাশ : ২০ মার্চ ২০১৯, ১৪:৪০
বিদ্রোহ বিজেপিতে, অরুণাচলে দলত্যাগ ২৫ নেতা-মন্ত্রীর
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ক্ষোভে ফুঁসছে উত্তর-পূর্ব ভারতে বিজেপির সংগঠন। সাধারণ নির্বাচনের টিকেট না পাওয়ায় অরুণাচল প্রদেশবিজেপি ছাড়লেন দলের অন্তত ১৮ জন শীর্ষনেতা।


এই ১৮ জন নেতার মধ্যে আছেন অরুণাচলে দলের সাধারণ সম্পাদক জারপুন গাম্বিন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কুমার ওয়াই ও পর্যটনমন্ত্রী জারকার গ্যামলিন। এছাড়াও বিজেপি ছেড়েছেন আরো ছয় বিধায়ক, যারা বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি প্রার্থীতালিকায় জায়গা পাননি।


আগামী এপ্রিলে সারা দেশে লোকসভা নির্বাচনের সঙ্গে বিধানসভা নির্বাচন হবে উত্তর-পূর্বের সিকিম এবং অরুণাচল প্রদেশেও। নির্বাচনের মাত্র তিন সপ্তাহ আগে একসঙ্গে এত নেতা পদত্যাগ করায় রাজ্য বিজেপি বিপর্যয়ে পড়েছে।


দল ছেড়ে বিদ্রোহী বিজেপি নেতারা যোগ দিয়েছেন মেঘালয়ের মুখ্যমন্ত্রী কনরাড সাংমা-র ন্যাশনাল পিপল্‌স পার্টিতে (এনপিপি), যারা বিজেপি শরিক হওয়া সত্ত্বেও ‘একলা চলো’ নীতিতেই এই ভোটে লড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।


গোটা উত্তর-পূর্বে এখনও পর্যন্ত মোট দু’টি দলকে শরিক হিসেবে জোগাড় করতে পেরেছে বিজেপি। এমনকি নিজেদের পুরনো শরিকদের মধ্যেও বিজেপির সঙ্গ ত্যাগ করার প্রবণতা বেড়ে চলেছে ঠিক ভোটের আগে। সিকিম ক্রান্তিকারী মোর্চা (এসকেএম) এবং এনপিপি সেই তালিকায় নতুন সংযোজন।


অরুণাচলে ছয় বিধায়ক, তিন মন্ত্রী ছাড়াও বিজেপি ছেড়েছেন দলের গুরুত্বপূর্ণ নেতা এবং সাবেক মন্ত্রী শেরিং জুরমে।


বিজেপি ছেড়ে আসা নেতা-মন্ত্রী-বিধায়কদের যোগদানের পর এনপিপি নেতা টমাস সাংমা জানিয়েছেন, ৬০ সদস্যের বিধানসভায় আমরা অন্তত ৪০টি আসনে প্রার্থী দেব। ভোটে জিতলে আমরা একাই সরকার গড়ার চেষ্টা করব।


দলত্যাগী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কুমার ওয়াই অরুণাচল বিজেপির বিরুদ্ধে পরিবারতন্ত্র এবং স্বজনপোষণের অভিযোগ এনেছেন। দল ছেড়ে তিনি জানিয়েছেন, বিজেপি ঠিক পথে থাকলে আমরা দল ছাড়তাম না। শীর্ষনেতৃত্ব সব সময় বলে দেশ এবং পার্টি ব্যক্তির আগে। কিন্তু বাস্তবে ঠিক তার উল্টোটা হয়। কংগ্রেসের বিরুদ্ধে পরিবারতন্ত্রের অভিযোগ তোলে বিজেপি। কিন্তু অরুণাচলে মুখ্যমন্ত্রীর পরিবারের লোকেরাই তিনটি টিকিট পেয়েছেন।


দলে এই বিদ্রোহের খবর সামনে আসার পর বিজেপি নেতা কিরেন রিজিজু জানিয়েছেন, কে টিকিট পাবেন, তা দলের অভ্যন্তরীণ বিষয়। রাজ্য নির্বাচন কমিটির সুপারিশ পাওয়ার পর কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিটি চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করেছে। অনেক নেতা-মন্ত্রী-বিধায়ককেই টিকিট দেয়া হয়নি। স্থানীয় পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।


অরুণাচলে দলের ৫৪টি আসনে প্রার্থীর নাম রবিবারেই প্রকাশ করেছে বিজেপি কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। তাতে এসব নেতাদের নাম ছিল না।


বিজেপির দলত্যাগী বিধায়ক ও মন্ত্রীদের পেয়ে যাওয়ার পর খুব তাড়াতাড়ি প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করে দেবে এনপিপি। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা


বিবার্তা/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com