এনআরসি থেকে কোনো ভারতীয়র নাম বাদ পড়বে না: মোদি
প্রকাশ : ০৫ জানুয়ারি ২০১৯, ১৫:১২
এনআরসি থেকে কোনো ভারতীয়র নাম বাদ পড়বে না: মোদি
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, দেশ বিভাজনের ‘ভুল’ শোধরাতেই নাগরিকত্ব বিল আনা হয়েছে এবং শীঘ্রই তা সংসদে পাশ হয়ে যাবে।


ভারতের আসামের শিলচরে শুক্রবার এক সমাবেশে ভাষণ দেয়ার সময় অমুসলিমদের আশ্বস্ত করেন নাগরিকত্ব আইনের সংশোধনের প্রসঙ্গ তুলে তিনি বলেছেন, সমস্যার বিষয়ে আমি অবগত। কিন্তু আশ্বাস দিচ্ছি একজন ভারতীয় নাগরিকও বিপদে পড়বেন না।


তিনি আরো বলেন, এটা মানুষের জীবন ও ভাবাবেগের সঙ্গে যুক্ত। বিশেষ কারও সুবিধার জন্য এটা করা হচ্ছে না। করা হচ্ছে অতীতের বহু ভুল ও অন্যায়ের প্রতিকার করার জন্য।


আফগানিস্তান, পাকিস্তান ও বাংলাদেশের সংখ্যালঘুদের (অমুসলিমদের) এ ভারতে আশ্রয় দিতে ১৯৫৫ সালের নাগরিকত্ব আইন বদলাতে চায় কেন্দ্রের বিজেপি সরকার। সংসদে পেশ করা এই সংক্রান্ত বিলে প্রস্তাব করা হয়েছে, ওই তিন দেশ থেকে ভারতে আসা অমুসলিমেরা ১২ বছরের বদলে ৬ বছরের মধ্যেই নাগরিকত্ব পাবেন।


মোদি বলেন, এনআরসি প্রক্রিয়া চলাকালীন আপনাদের অনেক সমস্যায় পড়তে হয়েছে, যা আমি বুঝতে পারি। আসাম সরকার সব চ্যালেঞ্জ সত্ত্বেও এনআরসি পূরণের চেষ্টা করছে। আমরা এনআরসি প্রক্রিয়া সহজ করার জন্য সুপ্রিম কোর্টের প্রতি আহবান জানিয়েছিলাম।


তিনি বলেন, আমাদের সরকার নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়েও এগিয়ে যাচ্ছে। এই বিল মানুষের অনুভূতি এবং তাদের জীবনের সাথে সম্পর্কিত। আমি আশা করি এই বিল শিগগিরি সংসদে পাস হবে এবং যারা ভারত মাতায় বিশ্বাস রাখে তাদের স্বার্থ সুরক্ষিত হবে।


সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে আসামে যে নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি) তৈরির কাজ চলছে, তাতে প্রায় ৪০ লাখ অসমবাসীর নাম ওঠেনি। নিয়ে ধর্ম-নির্বিশেষে আসামের বাঙালিদের উৎকণ্ঠার শেষ নেই। ১৯৭১ সালের নথি সংগ্রহ করতে না পেরে দশ লক্ষাধিক মানুষ নতুন করে আবেদন করতে পারেননি। এমন সময় মোদি একথা বললেন।


সমাবেশে মোদি বলেন ভোটের জন্য দেশের সার্বভৌমত্ব, নিরাপত্তা ও সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য নিয়ে আমরা আপোষ করতে দেবো না, এতে কারো সন্দেহ থাকা উচিত নয়। আসামের প্রত্যেক যুবক, দেশের তরুণরা দুর্নীতিমুক্ত নতুন ভারত চায়। ভিআইপি সংস্কৃতিমুক্ত এক স্বচ্ছ ব্যবস্থাপনা চায়।


মোদির সভা ঘিরে গত কয়েকদিন ধরেই শিলচরের মানুষের মধ্যে ক্ষোভ-বিক্ষোভ প্রকাশ পাচ্ছিল। এমনকি সভায় না-যাওয়ার আবেদন জানিয়ে একটি সংগঠন লিফলেটও বিলি করে। কিন্তু বেলা গড়াতেই দেখা গেছে সভাস্থল কানায় ভরে ওঠেছে।


গত সপ্তাহে আসামে এনআরসি কার্যকর করার সময় আরো ছয়মাস বাড়িয়ে দিয়েছে কেন্দ্র। আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত সময় দেয়া হয়েছে। এদিকে ২০১৯ সালের নির্বাচনে জিতে এলে সারা দেশে এনআরসি বলবত্‍ করার প্রচেষ্টা হবে বলে আগে থেকেই জানিয়ে দিয়েছে বিজেপি। সূত্র: পার্সটুডে ও আনন্দবাজার


বিবার্তা/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com