মর্যাদার সাথে ভারতে পালিত হচ্ছে ৭২তম স্বাধীনতা দিবস
প্রকাশ : ১৫ আগস্ট ২০১৮, ১৫:৪১
মর্যাদার সাথে ভারতে পালিত হচ্ছে ৭২তম স্বাধীনতা দিবস
কলকাতা প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

যথাযথ মর্যাদার সাথে বুধবার ভারতের ৭২তম স্বাধীনতা দিবস পালিত হচ্ছে। এ লক্ষ্যে দেশজুড়েই নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।


স্বাধীনতা দিবসের কুচকাওয়াজে অংশ নিতে এদিন সকালেই দিল্লির লালকেল্লায় পৌঁছে যান দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। প্রথমে সেখানে প্রধানমন্ত্রীকে সেনার তরফে ‘গার্ড অব অনার’ও দেয়া হয়। এরপর জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন প্রধানমন্ত্রী। সাথে সাথেই বেজে ওঠে দেশটির জাতীয় সঙ্গীত।


এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং, প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারামণ, তথ্য ও প্রযুক্তিমন্ত্রী রবি শঙ্কর প্রসাদ, সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং, আরেক সাবেক প্রধানমন্ত্রী এইচডি দেবগৌড়া, লোকসভার স্পিকার সুমিত্রা মহাজন, প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র, বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ, দলটির বর্ষীয়ান নেতা লালকৃষ্ণ আদবানী, দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল, কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতৃত্ব, ভারতের তিন বাহিনীর প্রধান ও নয়াদিল্লিতে নিযুক্ত একাধিক রাষ্ট্রের রাষ্টদূতরাও উপস্থিত ছিলেন।


স্বাধীনতা দিবস কর্মসূচি সুষ্ঠভাবে শেষ করার জন্য নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছিল ঐতিহাসিক লালকেল্লা। আকাশ পথেও নজরদারির ব্যবস্থা করা হয়েছিল।


পতাকা উত্তোলনের পর লালকেল্লায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন মোদি। আগামী বছর লোকসভার নির্বাচনের আগে এটাই মোদির শেষ ভাষণ। আর এই মঞ্চ থেকেই গত চার বছরে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের সাফল্যের খতিয়ান তুলে ধরেন। ভাষণে দুর্নীতি, নারী সুরক্ষা, সন্ত্রাসবাদ, কাশ্মীর ইস্যু, সার্জিক্যাল স্ট্রাইক, তিন তালাক, ব্যবসা, শিক্ষা, মহাকাশ অভিযানসহ একাধিক ইস্যু নিয়ে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।


দিল্লি ছাড়াও দেশটির প্রতিটি রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত রাজ্যগুলোতেও মর্যাদার সাথে পালিত হয় এই দিনটি। এদিন সকালে কলকাতার রেডরোডে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।


দিল্লিতে কংগ্রেসের সদর কার্যালয়ে দেশটির তিরঙ্গা পতাকা উত্তোলন করেন দলের সভাপতি রাহুল গান্ধী।


ভারত বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক সীমান্তের পেট্রাপোল স্থলবন্দরে স্বাধীনতা দিবস পালন করে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)। সেখানে উপস্থিত ছিল বাংলাদেশ বর্ডার গার্ডের (বিজিবি) কর্মকর্তারাও। দুই দেশের যাত্রী ও সাধারণ মানুষও ওই অনুষ্ঠান উপভোগ করেন। এ উপলক্ষ্যে বিজিবির হাতে মিষ্টি ও ফুল তুলে দেয় বিএসএফ।


ফুলবাড়িতে বিএসএফের সীমান্ত চৌকিতেও স্বাধীনতা দিবস পালনের পর বিজিবির হাতে মিষ্টি তুলে দেয়া হয়।


স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে ভারত-পাকিস্তান সীমান্তেও ছিল সৌহার্দ্যের ছবি। আত্তারি-ওয়াঘা সীমান্তে পাকিস্তানি রেঞ্জারস এবং বিএসএফের মধ্যে মিষ্টি বিনিময় হয়।


বিবার্তা/ডিডি/জাকিয়া


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com