‘কুকুর মরলেও কি মোদিকে বিবৃতি দিতে হবে?’
প্রকাশ : ১৮ জুন ২০১৮, ১৬:০৫
‘কুকুর মরলেও কি মোদিকে বিবৃতি দিতে হবে?’
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

‘বিতর্কিত’ ঘটনা নিয়ে আগেও মুখ বন্ধ রেখেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সাংবাদিক গৌরী লঙ্কেশ হত্যাকাণ্ডেও তিনি এখনো পর্যন্ত কিছু বলেননি।


তবে মোদি কিছু না বললেও তার হয়ে সাফাই দিতে গিয়ে বিতর্ক বাড়ালেন দেশটির ডানপন্থী দল শ্রীরাম সেনার প্রধান প্রমোদ মুথালিক। রবিবার এক জনসভায় কট্টরপন্থী হিন্দুত্ববাদী ওই সংগঠনের প্রধান প্রমোদ বলেন, অনেকেই সাংবাদিক গৌরী লঙ্কেশের মৃত্যুর ঘটনায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রতিক্রিয়া চেয়েছেন। কর্নাটকে কুকুর মারা গেলেও কি প্রধানমন্ত্রীকে বিবৃতি দিতে হবে?


গত বছরের ৫ সেপ্টেম্বর বেঙ্গালুরুতে নিজের বাড়ির সামনেই আততায়ীর গুলিতে নিহত হন সাংবাদিক গৌরী লঙ্কেশের। কর্নাটক পুলিশ জানিয়েছে, গ্রেফতার হওয়া ছয়জনের অন্যতম পরশুরাম ওয়াগমারে খুনের কথা স্বীকার করে নিয়েছে।


গৌরি লঙ্কেশের সঙ্গে কুকুর মৃত্যুর তুলনা টেনে আনায় স্বভাবতই বিতর্ক ছড়িয়েছে। তবে নিজের বক্তব্যের সাফাই দিয়েছেন প্রমোদ। তিনি বলেন, গৌরি লঙ্কেশের মৃত্যুর সঙ্গে কুকুরের মৃত্যুর তুলনা করেননি তিনি। বলতে চেয়েছেন প্রত্যেক মৃত্যু নিয়ে কথা বলতে পারেন না প্রধানমন্ত্রী, সেটা সম্ভব নয়৷


গৌরী লঙ্কেশের হত্যা নিয়ে মুখ খুলে এদিন রাম সেনা প্রধান জানান, কর্ণাটকে কংগ্রেসের আমলে ঘটনাটি ঘটে। খুনিদের মধ্যে দুইজন কর্ণাটকের আর বাকি দুইজন মহারাষ্ট্রের। এক্ষেত্রে কর্ণাটকের কংগ্রেস সরকারের ব্যর্থতা নিয়ে কেউ প্রশ্ন তুলেছে না। শুধু জিজ্ঞাসা করা হচ্ছে কেন প্রধানমন্ত্রী এ নিয়ে চুপ?


কংগ্রেসের মুখপাত্র মনীশ তেওয়ারি সাংবাদিক গৌরী লঙ্কেশের মৃত্যুতে প্রমোদ মুথালিকের এমন মন্তব্যের কড়া সমালোচনা করেন। টুইটে তেওয়ারি বলেন, শ্রীরাম সেনা দলের প্রধান প্রমোদ মুথালিকের এমন মন্তব্য ঘৃণ্য, বিরক্তিকর ও বিতৃষ্ণার।


ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী, আপনি সাংবাদিক গৌরী লঙ্কেশ হত্যায় নিন্দা জানাতে পারেননি। এখন কি আপনি মুথালিকের বক্তব্যেও প্রতিক্রিয়া জানাবেন না?


পুলিশের একাংশের দাবি, শ্রীরাম সেনার ভাবধারায় অনুপ্রাণিত হয়েছিল পরশুরাম। জেরায় ওই যুবক জানিয়েছে, গৌরী লঙ্কেশকে সে চিনত না। তবে ধর্মরক্ষার জন্য তাকে গৌরীকে খুন করতে বলা হয়েছিল। নির্দেশ মেনেই সে গৌরীর উপর গুলি চালায়।


যদিও সংগঠনের প্রধান প্রমোদ মুথালিকের দাবি, শ্রীরাম সেনা কোনোভাবে গৌরী লঙ্কেশ হত্যায় যুক্ত নয়। পরশুরামও শ্রীরাম সেনার সঙ্গে যুক্ত ন।


বিশেষ তদন্তকারী দল (সিট) কিন্তু এত তাড়াতাড়ি শ্রীরাম সেনাকে ক্লিনচিট দিতে রাজি নয়। তাদের ধারণা, পরশুরামের হয়তো ‘মগজ ধোলাই’ করা হয়েছিল। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তারা বেশ কয়েক জনকে তলব করেছে। যাঁদের মধ্যে রয়েছেন শ্রীরাম সেনার প্রথম সারির নেতা রাকেশ মঠ। সূত্র: আনন্দবাজার ও কলকাতা ২৪/৭


বিবার্তা/জাকিয়া


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com