কাশ্মিরের জনগণের পাশে সুপ্রিম কোর্ট
প্রকাশ : ১০ জানুয়ারি ২০২০, ১৮:২০
কাশ্মিরের জনগণের পাশে সুপ্রিম কোর্ট
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরে বারবার ১৪৪ ধারা জারিকে ক্ষমতার অপব্যবহার বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির সর্বোচ্চ আদালত। এছাড়া কাশ্মিরে অনির্দিষ্টকালের জন্য ইন্টারনেট বন্ধ রাখা দেশটির টেলিকম আইন পরিপন্থী বলে জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।


শুক্রবার (১০ জানুয়ারি) ঐতিহাসিক এক রায়ে কেন্দ্রীয় সরকারকে উদ্দেশ্য করে ভারতের সর্ব্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্ট এসব কথা বলেন। এসময় বিচারপতি এনভি রমনা, আর সুভাষ রেডি এবং বিআর গাভাইয়ের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ কাশ্মিরে সরকারের ইন্টারনেটে নিষেধাজ্ঞারও সমালোচনা করেন।


রায়ে সুপ্রিম কোর্ট বলেন, কাশ্মিরে বারবার কেন্দ্রীয় সরকারের জারি করা নিষেধাজ্ঞা সেখানকার বাসিন্দাদের বৈধ বাকস্বাধীনতা ও গণতান্ত্রিক অধিকারের পরিপন্থী। ইন্টারনেটের অধিকার বাকস্বাধীনতার অংশ। ইন্টারনেট বন্ধ রাখার বিষয়টি খতিয়ে দেখা দরকার। এসময় এক সপ্তাহের মধ্যে সব নিষেধাজ্ঞার কাগজপত্র খতিয়ে দেখার নির্দেশ দেন সুপ্রিম কোর্ট।


সুপ্রিম কোর্ট জানায়, মত প্রকাশের স্বাধীনতা কিংবা গণতান্ত্রিক অধিকার কেড়ে নিতে ১৪৪ ধারা হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করা যাবে না। সংবিধান বিভিন্ন ধারার মতকে সুরক্ষা দেয়। জন নিরাপত্তার ওপর সহিংসতার কার্যকরী হুমকি না থাকলে ১৪৪ ধারা জারি করা যাবে না। এক্ষেত্রে বারবার ১৪৪ ধারা জারি করা ক্ষমতার অপব্যবহার বলে বিবেচিত হবে বলে জানায় সুপ্রিম কোর্ট।


গত বছরের ৫ আগস্ট ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের ঘোষণার মধ্য দিয়ে কাশ্মিরের স্বায়ত্তশাসনের অধিকার কেড়ে নেয়া হয়। জম্মু-কাশ্মিরকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করতে পার্লামেন্টে পাস হয় একটি বিল। আর গত ৯ আগস্ট রাষ্ট্রপতির স্বাক্ষরের মধ্য দিয়ে আইনে পরিণত হয় বিলটি।


বিবার্তা/সোহেল/জাই

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com