জার্মানিতে এক বাংলাদেশী চিকিৎসক
প্রকাশ : ০৮ মার্চ ২০১৮, ১৭:১৭
জার্মানিতে এক বাংলাদেশী চিকিৎসক
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ডা. তসলিমা রাকিব পেশায় একজন গাইনোকলজিস্ট। জার্মানির আখেন শহরে যে দু'টি চেম্বারে সর্বাধুনিক চতুর্মাত্রিক প্রযুক্তিতে গর্ভের সন্তান পরীক্ষা করা যায়, তার একটি তাঁর। বাংলাদেশি-জার্মান এই চিকিৎসকের সাফল্য একদিনে আসেনি। জার্মান বেতার ডয়চে ভেলে লিখেছে সে কাহিনী :


জার্মানির আখেন শহরে ২০১৪ সালে নিজের চেম্বার চালু করেন ডা. তাসলিমা। এজন্য তাঁকে দীর্ঘদিন পরিশ্রম করতে হয়েছে। আর ছোটবেলা থেকেই তাঁর লক্ষ্য ছিল চিকিৎসক হবেন। শেষ পর্যন্ত লক্ষ্যে অটল থেকেছেন তিনি।


ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাস করে ১৯৯০ সালে স্বামীর সঙ্গে জার্মানিতে পাড়ি জমান ডা. তাসলিমা। ইউরোপের দেশটিতে আসার সঙ্গে সঙ্গে অবশ্য চিকিৎসক হিসেবে কাজ শুরু করতে পারেননি, বরং আরো তিন বছর লেখাপড়া করতে হয়েছে স্বপ্ন পূরণের জন্য। বর্তমানে চিকিৎসা পেশার তিনটি ক্ষেত্রে বিশেষায়িত ডিগ্রি রয়েছে তাঁর। শুধু স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ হিসেবেই নয়, জরুরি চিকিৎসক এবং মনোবিজ্ঞানী হিসেবেও কাজ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে ডা. তাসলিমার।


গর্ভজাত সন্তানের চতুর্মাত্রিক ছবি দেখার সুযোগ রয়েছে ডা. তাসলিমার চেম্বারে। বাংলাদেশি-জার্মান এই চিকিৎসকের ওপর এখন আস্থা রাখছেন অনেক জার্মান দম্পতি। তবে শুরুর দিকে কেউ কেউ ‘বিদেশি’ বলে তাঁর কাছ থেকে চিকিৎসা নিতে অনিচ্ছা প্রকাশ করতেন। কিন্তু নিজের দক্ষতায় তাদেরও আস্থা অর্জনে সক্ষম হন বাংলাদেশি-জার্মান এই চিকিৎসক৷


তিন সন্তানের জননী ডা. তাসলিমাকে কখনো কখনো দিনে ১০০ রোগীও দেখতে হয়। তাঁর বড় মেয়ে মেডিসিনে অধ্যয়নের শেষ পর্যায়ে রয়েছেন। কাজের চাপ কমাতে মেয়েকেও চেম্বারে নিয়োগ দিতে আগ্রহী ডা. তাসলিমা।


বিবার্তা/হুমায়ুন/মৌসুমী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com