বিদায় গোলাম সারওয়ার : ব্যক্তি নয়, থাকবেন প্রতিষ্ঠান হয়ে
প্রকাশ : ১৪ আগস্ট ২০১৮, ২১:১৮
বিদায় গোলাম সারওয়ার : ব্যক্তি নয়, থাকবেন প্রতিষ্ঠান হয়ে
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

গোলাম সারওয়ার, আমার প্রথম সম্পাদক। ২০০২ সাল, যুগান্তরের তখন ভরা যৌবন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ছাত্র হওয়ার সুবাদে ইন্টার্নশিপের সুযোগ হলো দৈনিক যুগান্তরে।


এক দুপুরে আমি আর সহপাঠী সাদাত বিভাগের চেয়ারম্যানের চিঠি নিয়ে হাজির হলাম যুগান্তরের কমলাপুর অফিসে। দীর্ঘ অপেক্ষার পর সম্পাদকের দেখা পেলাম। তিনি পাঠালেন বার্তা সম্পাদকের দায়িত্বে থাকা রাশীদ-উন নবী বাবু ভাইয়ের কাছে।
কাজের সুযোগ মিললো। ইন্টার্নশিপ দুই মাস। শেষ সময়ে আমি কাজ চালিয়ে যাওয়ার ইচ্ছার কথা জানালাম। আমি কাজ করতাম ইন্টারন্যাশনাল ডেস্কে। বিভাগের সবাই আমার প্রস্তাবে সম্মতি দিলো। শিফট ইনচার্জকে প্রস্তাব দেয়ার পর তিনি জানালেন, তার কাছে সম্পাদক জানতে চাইলে ইতিবাচক মতামত দেবেন। ইন্টার্নশিপের সময়ই বুঝে গিয়েছিলাম বার্তাকক্ষে গোলাম সারওয়ার একজন লৌহমানব। তার সামনে কথা বলার সাহস কারো নেই।


হাফিজুর রহমান ভাই তখন ইন্টারন্যাশনাল ডেস্কের শিফট ইনচার্জ। তার ছুটির দিনে দায়িত্ব পালন করতেন সুভাস সাহা। দাদার পায়ে সমস্যা থাকায় পেজ মেকআপে আমি তাকে সাহায্য করতাম। যুগান্তরে তখন নিয়ম ছিলো, সব পাতার ডামি-ই সম্পাদক গোলাম সারওয়ারকে দেখাতে হতো। যুগান্তরে তখন একটি নিউজও সারওয়ার ভাইয়ের অজ্ঞাতে প্রকাশের সুযোগ ছিলো না।


এমন কর্মদক্ষতা আর ধৈর্য অবাক করতো আমাদের। একজন সম্পাদকের পক্ষে কিভাবে পত্রিকার সব নিউজের উপর নজর রাখা সম্ভব! এডিটিংয়ে সারওয়ার ভাই মাস্টার পিস। হেডলাইনের পয়েন্ট, এক্সপান্ড, কমপ্রেস, বোল্ড, লাইট, ইটালিক- সব লিখে দিতে হতো। ভুল করে কেউ না লিখলেই সর্বনাশ!


যুগান্তর তখন টগবগে তরুণ্যে ভরা। বার্তাকক্ষে গোলাম সারওয়ারের নেতৃত্বে বাবু ভাই বার্তা সম্পাদকের দায়িত্ব সামলান। চিফ সাব-এডিটর অরুন কুমার দে। এডিটিং ডেস্কে আফাজ উদ্দিন বিপ্লব, নুরুল ইসলাম খোকন, ফাহিম আহমেদ, মানজারুল ইসলাম শাহীন, শাহানা শিউলি, রুবিনা আপার (সবার নাম লিখতে না পারায় দুঃখিত) সাথে সর্বকনিষ্ঠ আমি। বলতে গেলে হাতির লেজ মাত্র। তবে, ব্যক্তিক সম্পর্কে আমরা জড়িয়েছিলাম আত্মিক বন্ধনে। আর সবার উপরে সারওয়ার ভাই ছিলেন বটবৃক্ষ হয়ে।


সেই বৃক্ষ আজ লোকচক্ষুর অন্তরালে; নিভে গেলো আমাদের আরেকটি বাতিঘর। সারওয়ার ভাইয়ের সৃষ্টি ছড়িয়ে আছে দেশের প্রায় সব গণমাধ্যমে। অনেকেই নেতৃত্ব দিচ্ছেন অনেক প্রতিষ্ঠানের। কারো কারো হাত ধরে গড়ে উঠেছে নতুন গণমাধ্যম। সংবাদ সম্পাদনার পাশাপাশি গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানে নেতৃত্ব সৃষ্টিতেও সারওয়ার ভাই হয়ে আছেন অদ্বিতীয়।


অনুজ সহকর্মীদের মাধ্যমে পরম্পরা হয়ে ছড়িয়ে পড়বে সারওয়ার ভাইয়ের সাংবাদিকতার দিক-দর্শন; ব্যক্তির বিদায় হলেও তিনি থাকবেন প্রতিষ্ঠান হয়ে।


শেখ জাহিদের ফেসবুক থেকে


বিবার্তা/কাফী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com