আওয়ামী লীগ রক্ষা পাক,ষড়যন্ত্র নিপাত যাক
প্রকাশ : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১৮:৪৬
আওয়ামী লীগ রক্ষা পাক,ষড়যন্ত্র নিপাত যাক
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ফেইসবুকের দেয়ালে ভেসে আসা সূত্রমতে, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনসমূহের মধ্যে জেএমবি'র ক্যাডার ও জামাত-শিবির-বিএনপি অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে ঢুকে পড়েছে। একে অনেকে ''অনুপ্রবেশ'' বলেন। আমি বলি, আওয়ামী লীগের ক্ষমতা যদি দীর্ঘস্থায়ী হয় তাহলে এরা উইপোকার মতো দলের বান কাটতে থাকবে।


দেশের ৬৪ জেলায় শিবিরের অনেক নেতা-কর্মী ছিল। এরা এখন গেল কোথায়? এরা বর্তমানে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সংগঠনের সাথে মিশে গিয়েছে। শিবিরের ছেলেপেলে প্রচুর পড়াশুনা করে ভালভাল চাকুরী বাগিয়ে নিচ্ছে। চাকুরীতে যোগদানের পূর্বে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থাসমূহের মাধ্যমে যে তদন্ত করা হয় তা মাত্র কয়েকটি কচকচে নোট দিয়ে ঘুরিয়ে দেয়া যায়। এটা অত্যন্ত মামুলী ব্যাপার। আর ছাত্রলীগের ছেলেপেলে বিভিন্ন নেতার পেছনে ঘুরতে ঘুরতে কেল্লা ফতে।


আমি ছাত্রলীগের অনেক নেতাকে দেখেছি কর্মীদের তাদের পেছনে ঘুরতে বারণ করতে; তারপরও তারা নেতার পেছনে জোঁকের মতো লেগে থাকে। এ রকম যদি হয় তাহলে ছাত্রলীগের সক্রিয় কর্মীরা পড়ালেখা করে কখন? আমার মনে হয় সিনিয়র নেতাদের জুনিয়র নেতা-কর্মীদের এ ব্যাপারে কঠিন ও কঠোর হুশিয়ারী দেয়া প্রয়োজন। নতুবা প্রশাসন জামাত-বিএনপির দখলে চলে যাবে এবং ইতোমধ্য অনেকটা চলেও গেছে। আর ছাত্রলীগের কর্মীরা বিভিন্ন স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানে (যেখানে কেবল ভাইবা, লিখিত নাই) চাকুরীর জন্য নেতাদের পেছনে পেছনে ঘুরে বেড়াবে।


নদীদখলের মতো দলদখল যাতে না হয় এজন্য আওয়ামী লীগের উপরের সারির নেতাদের মনোযোগ প্রদান করা উচিত। বর্তমান সরকার জামাত-বিএনপিকে ব্যবসা-বানিজ্য করার ব্যাপক সুবিধা প্রদান করেছে। ঢাকা ব্যতীত অন্যান্য শহরের কাজ-কর্ম সম্পর্কে আমি জ্ঞাত নই কিন্তু ঢাকা শহরের বড় বড় ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করে বিএনপি করা লোকজন। এরা আওয়ামীলীগ ও এর অঙ্গসমূহের কিছু নেতাকে তাদের প্রতিষ্ঠানের উপদেষ্টা বানিয়ে কিছু নগদ নারায়ণ হাতে ধরিয়ে দিয়ে কোটি কোটি টাকার ব্যবসা হাতিয়ে নিচ্ছে।


সরকারের মনে রাখা উচিত, যারা বড় বড় ঠিকাদার অথবা ব্যবসায়ী তারা কখনো দল করে না। এরা সুবিধাবাদী। ছোট ছোট ব্যবসায়ী যারা অল্প টাকার মালিক তারা রাজপথে থেকে দলের জন্য কাজ করে। আওয়ামী লীগসহ অন্যান্য অঙ্গসমূহের নেতা-কর্মীদের সেই পথও বন্ধ হয়ে গেছে। তবে আওয়ামী লীগের বড় নেতাদের মনে হয় তেমন একটা সমস্যা নেই কারণ তারা বেশ খোশমেজাজেই আছেন। তাই মনের ভেতর থেকে বলতে চাই, আওয়ামী লীগ রক্ষা পাক,ষড়যন্ত্র নিপাত যাক।


মেহেদি হাসানের ফেসবুক থেকে


বিবার্তা/হুমায়ুন/মৌসুমী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com