চার কোটি মানুষের কর দেয়া উচিত: অর্থমন্ত্রী
প্রকাশ : ১৩ নভেম্বর ২০১৮, ১৩:৩৯
চার কোটি মানুষের কর দেয়া উচিত: অর্থমন্ত্রী
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, দেশের চার কোটি মানুষের কর দেয়া উচিত। বর্তমানে দিচ্ছে মাত্র ৩০ লাখের মতো মানুষ।


তিনি বলেন, বেশি মানুষ আয়কর দিলে সরকারি সেবা আরো বাড়ানো সম্ভব। এতে করে জনগণের জীবনমানের উন্নয়ন হবে।


রাজধানীর অফিসার্স ক্লাব মিলনায়তনে মঙ্গলবার জাতীয় আয়কর মেলার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।


করসেবা প্রদান ও কর সচেতনতা বাড়াতে প্রতিবছরের মতো এবারো সারা দেশব্যাপী আয়কর মেলার আয়োজন করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।


‘উন্নয়ন ও উত্তরণ, আয়করের অর্জন’ শ্লোগানকে সামনে রেখে এবারের মেলার প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘আয়কর প্রবৃদ্ধির মাধ্যমে সামাজিক ন্যায়বিচার ও ধারাবাহিক উন্নয়ন নিশ্চিতকরণ’।


অর্থমন্ত্রী বলেন, দেশের মানুষের জীবনমান উন্নয়নে কাজ করছে সরকার। এ জন্য আয়কর জমা নিশ্চিত করতে হবে। করের টাকায় দেশের উন্নয়ন করা হবে। মানুষের ভাগ্যোন্নয়নে উদ্যোগ নেয়া হবে।


তিনি বলেন, দেশের ২২ শতাংশ মানুষ অর্থাৎ তিন কোটি মানুষ এখনো দরিদ্র, এদের টেনে তোলাই চ্যালেঞ্জ। দেশের ৪ কোটি মানুষের কর দেয়া উচিত। বর্তমানে দিচ্ছে মাত্র ৩০ লাখের মতো।


তিনি আরো বলেন, কর প্রদানের সংস্কৃতি চালু হয়েছে। তার প্রমাণ এই আয়কর মেলা। আমাদের আরো বহুদূর যেতে হবে। গত ১০ বছরে বার্ষিক আয় দ্বিগুণের বেশি বেড়েছে। ভবিষ্যতে আরো বাড়াতে হবে।


এনবিআর চেয়ারম্যান মোশাররাফ হোসেন ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন অর্থ প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান।


এনবিআর চেয়ারম্যান মোশাররাফ হোসেন ভূইয়ার বলেন, বাংলাদেশের মানুষের সঙ্গে মেলার বন্ধন অনেক নিবিড়। কর জিডিপি রেসিও এখন আছে ১০ ভাগ, এটাকে আগামী কয়েক বছরে ১৫ ভাগে নিয়ে যেতে হবে।


প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত মেলা খোলা থাকেবে। আগামী ১৯ নভেম্বর পর্যন্ত এ মেলা চলবে। এছাড়া সব জেলা শহরে চার দিন এবং ৩২টি উপজেলায় দুই দিন মেলা হবে। পাশাপাশি ৭০টি উপজেলায় এক দিন ভ্রাম্যমাণ মেলা অনুষ্ঠিত হবে।


২০১০ সালে প্রথমবারের মতো ঢাকা ও চট্টগ্রামে আয়কর মেলার আয়োজন করা হয়। এরপর প্রতিবছরই মেলার পরিধি বেড়েছে।


এবারের মেলায় সহজে রিটার্ন দাখিলের জন্য প্রতিটি করাঞ্চলের জন্য আলাদা বুথ থাকবে। ই-পেমেন্টের সুযোগ থাকবে। করদাতাদের মেলা প্রাঙ্গণে আয়কর রিটার্ন, ই-টিআইএন এবং চালান ফরম সরবরাহ করা হবে।


করদাতারা মেলায় শুল্ক, ভ্যাট, সঞ্চয় অধিদফতর ও অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের যে কোনো তথ্য জানতে পারবেন। মুক্তিযোদ্ধা, নারী, প্রতিবন্ধী ও প্রবীণ করদাতাদের জন্য আলাদা বুথ থাকবে।


বিবার্তা/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com