করোনার পর্যাপ্ত সুরক্ষা সরঞ্জামের দাবি ব্যাংক কর্মকর্তাদের
প্রকাশ : ২৪ মার্চ ২০২০, ১৯:০২
করোনার পর্যাপ্ত সুরক্ষা সরঞ্জামের দাবি ব্যাংক কর্মকর্তাদের
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

করোনাভাইরাসের সংক্রমন রোধে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার। তবে এই ছুটিতে সীমিত আকারে ব্যাংকিং কার্যক্রম চালু রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।


সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত নগদ লেনদেনের সুবিধার্থে ব্যাংক বিশেষ ব্যবস্থায় বেলা ১০টা থেকে ১২ পর্যন্ত খোলা থাকবে ।


লেনদেনের সুবিধার্থে ব্যাংক চালু রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হলেও করোনার বিস্তার রোধে ব্যাংক কর্মকর্তাদের পর্যাপ্ত সুরক্ষা সরঞ্জাম দেয়া হয়নি।


এ বিষয়ে একটি সরকারি ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার রেজা ফরহাদ বিবার্তাকে বলেন, ‘প্রয়োজনে সোমবার কিংবা বুধবার সীমিত আকারে ব্যাংক খোলা রাখা যেতে পারে। লেনদেন সীমিত করার ঘোষনায় ব্যাংকে গ্রাহকের ভীড় বেড়েছে। গ্রাহককে নির্দিষ্ট দুরত্বে দাঁড়িয়ে সেবা নেয়ার পরামর্শ দেয়া হলেও শুনছেন না তারা। ব্যাংক চালু রাখার ঘোষনা আসলেও এখনো কর্মকর্তাদের পর্যাপ্ত সরঞ্জাম দেয়া হয়নি। হেক্সাসল বা মাস্ক দেয়া হলেও সেটা পর্যাপ্ত নয়। এতে ব্যাংক কর্মকর্তারা আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন।


স্বাধীনতা ব্যাংকার্স পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি শওকত হোসেন সজল বিবার্তাকে বলেন, সরকারি সব অফিস বন্ধ রেখে ব্যাংক খোলা রাখলে মানুষ লেনদেনে ব্যাংকমুখী হবে। লেনদেন সীমিত করায় লেনদেনে ভীড় বাড়বে ব্যাংকে। ঠেসাঠেসি করে লেনদেন করতে এসে অনেক মানুষ আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এক্ষেত্রে ব্যাংক কর্মকর্তারাও ঝুঁকির মধ্যে পড়েছে।


তিনি আরো বলেন, স্বাস্থ্য সুরক্ষায় কোনোর সরঞ্জাম দেয়া হয়নি। একজন ডাক্তার নিজে সুরক্ষিত হয়ে রোগী দেখতে পারেন কিন্তু ব্যাংকাররা নিজে সুরক্ষিত নয়। করোনা ঝুঁকি এড়াতে ব্যাংক বন্ধ রাখাই ভালো। তবে চালু রাখতে হলে ব্যাংক কর্মকর্তাদের প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম বা সুরক্ষা নিশ্চিত করতে হবে। এ বিষয়ে আজ বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্ণর বরাবর একটি স্মারকলিপি দেয়ার কথা রয়েছে।


জানা গেছে, করোনা ঝুঁকি এড়াতে প্রতিটি ব্যাংকে হেক্সাসল ও মাস্ক দেয়া হয়েছে। তবে তা পর্যাপ্ত নয়। এছাড়া, গ্রাহকদের জন্য প্রবেশ পথে হেক্সাসলের ব্যবস্থা করা হলেও অনেকে হেক্সাসল না নিয়ে ব্যাংকে প্রবেশ করছে। এতে টাকার মাধ্যমে করোনা ছাড়ানো বা অন্যের মাধ্যম থেকে সংক্রমিত হওয়ার শঙ্কা রয়েছে।


বিবার্তা/বাণী/আবদাল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com