ব্যাংকে ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের দেড় হাজার কোটি টাকা
প্রকাশ : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:৫৯
ব্যাংকে ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের দেড় হাজার কোটি টাকা
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের সঞ্চয় বেড়েই চলছে। স্কুল ব্যাংকিংয়ের আওতায় শিক্ষার্থীদের হিসাব খোলার সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১৯ লাখ ৯৬ হাজার।


এসব হিসাবে নম্বরে সঞ্চয়ের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে প্রায় এক হাজার ৫০০ কোটি টাকা। বাংলাদেশ ব্যাংকের (জুন-১৯) হালনাগাদ প্রতিবেদনে ওঠে এসেছে এসব তথ্য।


শিক্ষার্থীদের সঞ্চয়ের অভ্যাসে উৎসাহিত করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের উদ্যোগে চালু হয় স্কুল ব্যাংকিং কার্যক্রম। এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা যেমন উপকৃত হচ্ছে, তেমনি বাণিজ্যিক ব্যাংকেরও আমানতের পাল্লা ভারী হচ্ছে। ব্যাংকের মাধ্যমে তাদের সঞ্চিত টাকা বিনিয়োগ হয়ে জাতীয় অর্থনীতিতেও অবদান রাখছে।


বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০১৯ সালের জুন শেষে দেশের ৫৬টি বাণিজ্যিক ব্যাংকে স্কুল ব্যাংকিংয়ের আওতায় ১৯ লাখ ৯৬ হাজার ৩০টি হিসাব খুলেছে ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা। এসব হিসাবের বিপরীতে স্কুলের শিক্ষার্থীদের সঞ্চয়ের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৪৯৪ কোটি ৪০ লাখ টাকা।


এর মধ্যে শহরের স্কুলের শিক্ষার্থীদের খোলা হিসাবের সংখ্যা ১২ লাখ ২৫ হাজার চারটি। আর গ্রামের শিক্ষার্থীদের রয়েছে ৭ লাখ ৭১ হাজার ২৬টি হিসাব।


হিসাব খোলায় এগিয়ে ছাত্ররা। মোট হিসাবের মধ্যে ১১ লাখ ৩৮ হাজার ৮০ বা ৫৭ শতাংশ ছাত্র ও ৮ লাখ ৫৭ হাজার ৯৫০টি বা ৪৩ শতাংশ ছাত্রীদের।


প্রতিবেদন অনুযায়ী, স্কুল ব্যাংকিংয়ে হিসাব খোলার ক্ষেত্রে এগিয়ে আছে বেসরকারি ব্যাংকগুলো। জুন শেষে বেসরকারি খাতের ব্যাংকগুলোর হিসাব সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৩ লাখ ৮৭ হাজার ৭২৫টি। আর এসব হিসাবে মোট সঞ্চয় এক হাজার ২৩৭ কোটি ৭৫ লাখ টাকা।


এছাড়া রাষ্ট্রীয় মালিকানার বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোতে ৪ লাখ ৭৪ হাজার ৯৮টি হিসাব খোলা হয়েছে। এসব হিসাবের বিপরীতে সঞ্চয় দাঁড়িয়েছে ১৯৮ কোটি ৪৭ লাখ টাকা।


সবচেয়ে বেশি হিসাব খোলা হয়েছে ইসলামী ব্যাংকে ৩ লাখ ৬৯ হাজার ৬২৩টি। যা মোট হিসাবের ১৮ দশমিক ৫২ শতাংশ। এরপরে রয়েছে ডাচ-বাংলা ৩ লাখ ৬৮ হাজার ৪৩৫টি, অগ্রণী ব্যাংকের ২ লাখ ২০ হাজার ৪৯টি হিসাব। এছাড়া রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকে ১ লাখ ৭ হাজার ১০২টি এবং উত্তরা ব্যাংকে ৮৯ হাজার ৩৬১টি হিসাব রয়েছে।


২০১০ সালে সঞ্চয়ে উদ্বুদ্ধ করতে ‘স্কুল ব্যাংকিং’ কার্যক্রম শুরু হলেও শিক্ষার্থীরা টাকা জমা রাখার সুযোগ পায় ২০১১ সালে।


বিবার্তা/রবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com