একসময়ের বলিউড অভিনেতা এখন নিরাপত্তা কর্মী
প্রকাশ : ২০ মার্চ ২০১৯, ২৩:৪০
একসময়ের বলিউড অভিনেতা এখন নিরাপত্তা কর্মী
বিনোদন ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ভাগ্য যে কখন কোথায় মানুষকে পৌঁছে দেয়, তা বলা বড়ই মুশকিল। একসময় 'গুলাল', 'পাতিয়ালা হাউস' 'বেয়াকুফিয়া' সহ একাধিক ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। আজ ভাগ্যের নিদারুণ পরিহাসে সিনেমা দেখা তো দূরের কথা, পেটের ভাত জোগাতে একটি অ্যাপার্টমেন্টে টানা ১২ ঘণ্টার নিরাপত্তারক্ষীর কাজ করেন। তিনি অভিনেতা সাভি সিধু।


একসময়ের নামি এই অভিনেতা কিন্তু বর্তমানে তার জীবনটাও এখন অনেকটা সিনেমার মতোই। তবে তার গল্পটি মোটেও সুখের নয়। ব্ল্যাক ফ্রাইডে, গুলাল, পাতিয়ালা হাউস সিনেমায় অভিনয় করেছেন। কিন্তু এখন মুম্বাইয়ের একটি ভবনের নিরাপত্তা কর্মী হিসেবে কাজ করছেন এ বলিউড অভিনেতা।


সম্প্রতি ইন্টারনেটে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। এরপরই সাভি সিধুর বিষয়টি সবাই জানতে পারেন। ভিডিওটিতে নিজের বর্তমান পরিস্থিতির বর্ণনা দিয়ে এ অভিনেতা বলেন, ‘এটি ১২ ঘণ্টার খুব কঠিন কাজ। অনেকটা যান্ত্রিক জীবনের মতো কাজ। এমনকি আমার বাসের টিকিট কেনার টাকা নেই। টিকিট কিনে সিনেমা দেখা এখন আমার কাছে স্বপ্নের মতো। আমার আর্থিক অবস্থা ভালো নয়।’


ভিডিওটি নজরে আসার পর অভিনেতা রাজকুমার রাও নির্মাতা অনুরাগ কাশ্যপ মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে সাভি সিধুকে নিয়ে টুইট করেছেন। ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি শেয়ার করে রাজকুমার রাও লেখেন, ‘সাভি সিধু স্যার আপনার ঘটনা থেকে অনেক আনুপ্রাণিত হয়েছি। যত সিনেমা করেছেন সবকটিতে আপনার অভিনয় ভালো লেগেছে। আপনার ইতিবাচকতা খুব ভালো লেগেছে। আমার সকল কাস্টিং ডিরেক্টর বন্ধুকে আপনার কথা বলব। অধ্যাবসায় সকল বাধা দূর করার মূল চাবিকাঠি।’


অনুরাগ কাশ্যপের হাত ধরেই বলিউডে পা রাখেন সাভি সিধু। এ নির্মাতা টুইটারে লিখেছেন, ‘আমি অভিনেতা হিসেবে সাভি সিধুকে খুবই শ্রদ্ধা করি। তাকে তিনবার আমার সিনেমায় নিয়েছি এবং চরিত্রগুলো তিনি নিজের যোগ্যতায় পেয়েছেন। আমি তাকে শ্রদ্ধা জানাচ্ছি কারণ তিনি একটি সম্মানজনক পেশা বেছে নিয়েছেন, যেখানে অন্যান্য অনেক অভিনয়শিল্পী এরকম পরিস্থিতিতে মদ্যপ হয়ে পড়েন অথবা নিজেক নষ্ট করে ফেলেন।’


অভিনেতা নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী ও নিজের উদাহরণ দিয়ে তিনি আরো লেখেন, ‘নওয়াজউদ্দিন প্রহরী ছিলেন। আমি ওয়েটার হিসেবে কাজ করেছি। একজন অভিনেতাকে দেখেছি যিনি রাস্তায় ভেলপুরি বিক্রি করতেন, ব্ল্যাক ফ্রাইডে সিনেমার একজন অভিনেতাকে চিনি, যিনি রিকশা চালান। আমার ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে হাম পাঁচ, খেল খিলাড়ি কা সিনেমার অভিনেতা উদয় চন্দ্রকে রাস্তায় ঘোরাঘুরি করতে দেখেছি। আবেগাপ্লুত হয়ে কোনো শিল্পীকে কাজ দেয়া মানে তাকে অপমান করা।’



এ নির্মাতা লিখেছেন, ‘অন্যান্যদের মতো কাস্টিং ডিরেক্টরদের কাছে গিয়ে চরিত্রটি অর্জনের জন্য অডিশন দিতে হবে, তাকেও অন্যান্য লাখ লাখ শিল্পীর মতো কাস্টিং ডিরেক্টরের অফিসে যেতে হবে। তিনি বুদ্ধিদীপ্ত সিদ্ধান্তই নিয়েছেন। সবাই এ জন্য তাকে নিয়ে গর্ব করতে পারেন। অহংবোধ থেকে তিনি নিজেকে ধ্বংস করেননি বরং একটি কাজ করছেন। নিরাপত্তাকর্মীর কাজ ছোট কিংবা বড় এটি কোনো বিষয় নয়। অন্তত তিনি ভিক্ষা করছেন না। আমি বিশ্বাস করি, দয়া দিয়ে কোনো শিল্প ও শিল্পী হয় না। আপনি যদি তার মতো শিল্পীকে সাহায্য করতে চান তাহলে অর্থ দিয়ে তার শিল্প দেখুন।’


জানা যায়, সাভি সিধুর অভিনয় জীবনের শুরুটা হয়েছিল চণ্ডীগড় থেকে। লখনৌতে স্কুলের পড়াশোনা শেষ করে চণ্ডীগড়ে গ্র্যাজুয়েশন করতে করতে মডেলিংয়ের প্রস্তাব পান। যদিও আইন নিয়ে পড়াশোনা করতে ফের লখনৌতে ফিরে যান তিনি। পরবর্তী মুম্বাইয়ে এসে স্ট্রাগল শুরু করেন সাভি। প্রথমে পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপের পাঁচ সিনেমায় অভিনয় করেন। যদিও সেই সিনেমাটি মুক্তি পায়নি। পরে তাকে ব্ল্যাক ফ্রাইডে সিনেমাতে নেন এ পরিচালক। সিনেমাটিতে কমিশনার শর্মার চরিত্রে অভিনয় করেন সাভি। পরবর্তী সময়ে গুলাল সিনেমাতেও কাজ করেন তিনি। অসুস্থতার জন্য তাকে কাজ ছাড়তে হয়। তারপর এ অভিনেতার বাবা, মা ও স্ত্রী মারা যান। ধীরে ধীরে তার পরিস্থিতিও বদলে যায়।


বিবার্তা/শারমিন

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com