‘মায়াবতী’তে তিশার মা তিনি
প্রকাশ : ১১ জানুয়ারি ২০১৯, ১৭:০৩
‘মায়াবতী’তে তিশার মা তিনি
ছবি : মোহসীন আহমেদ কাওছার
অভি মঈনুদ্দীন
প্রিন্ট অ-অ+

সিনেমার নন্দিত অভিনেত্রী তিনি। তিনি অরুনা বিশ্বাস। তবে বর্তমানে শুধু সিনেমাতেই অভিনয় করেন না তিনি টিভি নাটকেও তার রয়েছে সরব উপস্থিতি। বিশেষ বিশেষ দিবসে তিনি নাটকও নির্মাণ করেন। তবে নতুন বছরে তিনি অরুণ চৌধুরীর নতুন সিনেমা ‘মায়াবতী’তে অভিনয় করেছেন। এই সিনেমায় তিনি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী নূসরাত ইমরোজ তিশার মায়ের চরিত্রে অভিনয় করছেন।


এরইমধ্যে তিনি এই সিনেমার কাজ প্রায় শেষ করেছেন। অরুণ চৌধুরীর নির্দেশনায় এর আগে অরুনা বিশ্বাস একটি নাটকে অভিনয় করেছিলেন। সিনেমায় তিনি এবারই প্রথম কাজ করেছেন। কেমন লাগলো অরুণ চৌধুরীর নির্দেশনায় কাজ করতে?


জবাবে অরুনা বিশ্বাস বলেন, আমি যতোটুকু কাজ করেছি ততোটুকুতো ভালো হয়েছেই। বাকিটুকু কেমন হয়েছে তা বলতে পারবো না। অরুণ দা’তো গুছিয়ে কাজ করার চেষ্টা করেন। তবে সিনেমাতে এখন কাজ করতে গিয়ে আমার বারবার একটি কথাই মনে হয় যে সিনেমার গল্পের ক্ষেত্রে গবেষণা হওয়াটা খুব জরুরী। তাহলে আমরা আরো অনেক ভালো ভালো গল্প দর্শককে উপহার দিতে পারতাম।


এদিকে অরুনা বিশ্বাস সংরক্ষিত মহিলা আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী। কেন আপনি সংরক্ষিত আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী? এমন প্রশ্নের জবাবে অরুনা বিশ্বাস বলেন, আমার পরিবার বঙ্গবন্ধুর আদর্শের পরিবার। আমরা সঠিক ইতিহাস জেনেই বেড়ে উঠেছি। ছোটবেলা থেকেই দেখেছি আমার পরিবার বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনৈতিক সচেতন পরিবার। আমি মনেকরি আমার বয়স, আমার লেখাপড়া, আমার পারিবারিক ঐতিহ্য আমাকে এই মুহূর্তে দেশসেবায় নিজেকে নিয়োজিত করতে সক্ষম। আমি দেশের জন্য কাজ করতে আন্তরিকভাবেই প্রস্তুত। প্রধানমন্ত্রী যদি আমাকে দেশের মানুষের সেবা করার সেই পথ তৈরি করে দেন তাহলে সেটা হবে জীবনের অন্যতম অর্জন।


সর্বশেষ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে গেলো ৮ জানুয়ারি দেখা হয়েছে অরুনা বিশ্বাসের। প্রধানমন্ত্রী সহাস্যে তারসঙ্গে কথা বলেছেন। গেলো বিজয় দিবসে অরুনা বিশ্বাস হাবিব শাকিলের নির্দেশনায় ‘বাবা আসবেন’ নাটকে অভিনয় করেছেন। এটি এনটিভিতে প্রচার হয়। এছাড়াও বিজয় দিবসে তার নির্দেশনায় ‘জয়নব বিবি’ নাটকটি চ্যানেলে আইতে প্রচার হয়। এতেও তিনি নাম ভূমিকায় অভিনয় করেন।


১৯৭১ সালে যখন মুক্তিযুদ্ধ চলছিলো সেই সময় চিত্রনায়িকা অরুনা বিশ্বাস টাঙ্গাইলের মির্জাপুরের ভারতেশ্বরী হোমসের ছাত্রী ছিলেন। সেই সময় হোমসের প্রধান শিক্ষিকা ছিলেন প্রতিভা মুৎসুদ্দী। তিনি এখন অবসরপ্রাপ্ত একজন শিক্ষক হিসেবে কুমুদিনী ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টে কর্মরত আছেন। তার কাছেই তারই শিক্ষার্থী অরুনা বিশ্বাস মুক্তিযুদ্ধের গল্প শুনতে গিয়েছিলেন বিজয়ের মাসে।


বিবার্তা/অভি/জহির

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com