অভিনয়েই ব্যস্ত শিরীন আলম
প্রকাশ : ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২২:৫৯
অভিনয়েই ব্যস্ত শিরীন আলম
ছবি : মোহসীন আহমেদ কাওছার
অভি মঈনুদ্দীন
প্রিন্ট অ-অ+

মঞ্চের আঙিনা থেকে ছোটপর্দায়, তারপর তার ব্যস্ততা ছিলো চলচ্চিত্রে। এভাবে একটু একটু করে অভিনয়ের আঙিনায় শিরীন আলম তার চরিত্রগুলোতে অভিনয়ের মধ্যদিয়ে বহুমাত্রিক চরিত্রে নিজেকে যোগ্য করে তুলেছেন বিগত দেড় যুগে। এখন অভিনয়ই তার পেশা।


২০০০ সাল থেকে তিনি টিভি নাটকে নিয়মিত অভিনয় করছেন। অবশ্য তার আগে তিনি ‘পদধ্বনি’ নাট্যদলের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন ১০ বছর এবং ‘নাগরিক নাট্যসম্প্রদায়’র সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন এক বছর।


পদধ্বনির হয়ে তিনি ‘মামা মন্ত্রী হবেন’ এবং ‘বাবার বিয়ে’ নাটকে অভিনয় করেছেন।


মোমিনুর রশীদ মিল্লাতের নির্দেশনায় তিনি প্রথম ‘অভিশাপ’ নাটকে অভিনয় করেন। সেই থেকেই টিভি নাটকে তার পথচলা শুরু। এরপর তিনি আব্দুল্লাহ আল মামুনের নির্দেশনায় ‘বাবা’,‘সংসার’, ‘জোয়ার ভাটা’সহ আরো বহু নাটকে অভিনয় করেন। জাহিদ হাসানের নির্দেশনায় ‘লাল নীল বেগুনী’ ধারাবাহিকে অভিনয় করেও তিনি আলোচনায় ছিলেন।


আবুল হায়াতের নির্দেশনায় তিনি প্রথম অভিনয় করেন কাজী নজরুল ইসলাম’র ‘ঝিলিমিলি’ নাটকে। এরপর একই পরিচালকের নির্দেশনায় বহু নাটকে অভিনয় করেছেন তিনি। সালাহ উদ্দিন লাভলুর ‘ঘরকুটুম’,‘ঢোলের বাদ্য’,‘হাড়কিপ্টে’,‘শিলবাড়ি’ নাটকে অভিনয় করেও দারুণ প্রশংসিত হয়েছেন শিরীন আলম। তারিকুল ইসলামের ‘গাঁও গেরামের মানুষজন’ ধারাবাহিকে অভিনয় করেও প্রশংসিত হন শিরীন আলম।


শিরীন আলম এই মুহূর্তে বেশ কয়েকটি ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করছেন যারমধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে সৈয়দ শাকিলের ‘প্রেম নগর’,‘ সঞ্জিত সরকারের ‘মজনু একজন পাগল নহে’,আশীষ রায়ের ‘ভালোবাসার রং’। চলচ্চিত্রে অভিনয় করেও প্রশংসিত হয়েছেন তিনি। তৌকীর আহমেদ’র ‘দারুচিনি দ্বীপ’, গিয়াস উদ্দিন সেলিমের ‘মনপুরা’ , চাষী নজরুল ইসলামের ‘শাস্তি’, শাহীন সুমনের ‘লাভ ম্যারেজ’, অনন্য মামুনের ‘ভালোবাসার গল্প’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন তিনি।


শিরীন আলমের জন্ম ঢাকাতেই। তার বাবা সৈয়দ জয়নাল আবেদীন ও মা মনোয়রা আবেদীন। ১৯৮২ সালের ৬ জুন এস এম শাহ আলমকে বিয়ে করেন তিনি। তার তিন পুত্র শাওন, শোভন ও প্রান্ত। এই নিয়েই তার সুখের সংসার। অভিনয়কে পেশা হিসেবে নিয়ে দারুণ তৃপ্ত তিনি।


শিরীন আলম বলেন, কখনোই মনে হয়নি যে অভিনয়কে পেশা হিসেবে নিয়ে ভুল করেছি। সবার ভাগ্যে অভিনয় করার সুযোগ হয়ে উঠেনা। আল্লাহর অশেষ রহমতে এবং সবার সহযোগিতায় আমি অভিনেত্রী হতে পেরেছি, এটা আমার জন্য অনেক বড় পাওয়া। সাধারণ মানুষের ভালোবাসার আমি মুগ্ধ হই সবসময়। অভিনয় করে তাদের ভালোবাসা প্রতিনিয়তই পাই আমি। একজন সাধারণ মানুষ হলে এটা সম্ভব ছিলো না। আমি আমৃত্যু অভিনয় করে যেতে চাই।


বিবার্তা/অভি/কাফী


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com