আলতাফ মাহমুদ পদকে ভূষিত হাসান ইমাম-ফেরদৌসী মজুমদার
প্রকাশ : ৩১ আগস্ট ২০১৮, ২০:৪৮
আলতাফ মাহমুদ পদকে ভূষিত হাসান ইমাম-ফেরদৌসী মজুমদার
ছবি : আলিফ হোসেন রিফাত
অভি মঈনুদ্দীন
প্রিন্ট অ-অ+

শহীদ আলতাফ মাহমুদ ফাউন্ডেশন কর্তৃক আয়োজিত ‘শহীদ আলতাফ মাহমুদ পদক’-এ ভূষিত হলেন কিংবদন্তী দুই অভিনয়শিল্পী সৈয়দ হাসান ইমাম ও ফেরদৌসী মজুমদার।


বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর সেগনুবাগিচার শিল্পকলা একাডেমির সঙ্গীত ও নৃত্যকলা মিলনায়তনে এই দুই কিংবদন্তীর হাতে ‘শহীদ আলতাফ মাহমুদ পদক’ তুলে দেয়া হয়। মূলত মশিল্পকলা একাডেমি ও শহীদ আলতাফ মাহমুদ ফাউন্ডেশনের যৌথ উদ্যোগে সেদিন এই পদক দুই কিংবদন্তীর হাতে তুলে দেয়া হয়।


অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বরেণ্য অভিনেতা আলী যাকের। তার হাত থেকেই দু’জন গুণী শিল্পী এই পদক গ্রহণ করেন।


পদক পাওয়া প্রসঙ্গে সৈয়দ হাসান ইমাম বলেন, আলতাফ মাহমুদ আমার চেয়ে বয়সে বড় ছিলেন, কিন্তু তিনি ছিলেন আমার বন্ধুর মতো। মুক্তিযোদ্ধা আলতাফ মাহমুদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এই পদকপ্রাপ্তিকে আমি অনেক সম্মানের, গর্বের বলে মনেকরি। কারণ স্বাধীনতা পদক, একুশে পদক রাষ্ট্রীয় পুরস্কার-অনেক সম্মানের পুরস্কার। কিন্তু আলতাফ মাহমুদের এই পুরস্কারের সাথে সারা দেশের মানুষের মনের সংযোগ আছে। প্রিয় এই মানুষের নামে এই পুরস্কার আমাকে গর্বিত করেছে।


ফেরদৌসী মজুমদার বলেন, আলতাফ মাহমুদের সুর আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃতি পেয়েছে। কে বলে তিনি নেই, তিনি অমর হয়ে আছেন তার সৃষ্টির মধ্যেদিয়ে। তিনি যে কতো বড় একজন সুরকার ছিলেন তা আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙ্গানো একুশে ফেব্রুয়ারি গানটির কথা বিশেষভাবেই বলতে গেলে বুঝা যায়। তার সব গানেরই সুর প্রাণে গিয়ে লাগে, এটা সবাই পারেনা। আলতাফ মাহমুদ আলতাফ মাহমুদই। বাংলাদেশ যতোদিন থাকবে, তিনিও ততোদিন অমর হয়েই রইবেন। তার স্মৃতিতে আজকের পদকপ্রাপ্তি আমার জন্য সত্যিই অনেক আনন্দের।


অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আলতাফ মাহমুদের মেয়ে ও ফাউন্ডেশনের সচিব শাওন মাহমুদ। পদকপ্রাপ্তদের শুধু পদকই নয়, উত্তরীয় পরিয়ে দেবার পাশাপাশি সম্মানীও প্রদান করা হয়।


অমর সুরস্রষ্ঠা শহীদ আলতাফ মাহমুদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে ২০০৫ সালে গঠিত হয় ‘শহীদ আলতাফ মাহমুদ ফাউন্ডেশন’। একটি পদক, উত্তরীয় ও আর্থিক সম্মাননা প্রদানের মাধ্যমে ‘শহীদ আলতাফ মাহমুদ পদক’ দেয়া হয়ে থাকে। এ পর্যন্ত আলতাফ মাহমুদ পদক পেয়েছেন যারা চিত্রগ্রাহক বেবি ইসলাম (২০০৫), সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ড. এনামুল হক (২০০৬), সঙ্গীতশিল্পী সাবিনা ইয়াসমিন (২০০৭), সঙ্গীতশিল্পী অজিত রায় ও সঙ্গীত পরিচালক খোন্দকার নুরুল আলম (২০০৮), সঙ্গীতশিল্পী সুধীন দাস (২০০৯), স্বাধীনবাংলা বেতার কেন্দ্রের কণ্ঠসৈনিক বিপুল ভট্টাচার্য (২০১০), সঙ্গীত পরিচালক আলম খান (২০১১), অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম ও নায়করাজ রাজ্জাক (২০১২), চিত্রশিল্পী মুস্তাফা মনোয়ার ও সঙ্গীত পরিচালক মো. শাহ্নেওয়াজ (২০১৩), শিল্পী কাইয়ূম চৌধুরী ও সঙ্গীত পরিচালক আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল (২০১৪), সঙ্গীত পরিচালক আলাউদ্দিন আলী ও কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক (২০১৫), অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী (২০১৬), নাট্যব্যক্তিত্ব আলী যাকের ও শিল্প-সমালোচক মফিদুল হক (২০১৭)।


বিবার্তা/অভি/কাফী


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com