কাজের দায়িত্ব বহুগুণ বেড়ে গেলো : মাহফুজ আহমেদ
প্রকাশ : ১৯ মে ২০১৭, ২১:৫০
কাজের দায়িত্ব বহুগুণ বেড়ে গেলো : মাহফুজ আহমেদ
মাহফুজ আহমেদ
বিনোদন প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

টিভি পর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা মাহফুজ আহমেদ। পাশাপাশি চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেন তিনি। এ চলচ্চিত্রই এবার দ্বিতীয়বারের মতো জাতীয় সম্মান এনে দিল তাকে। ‘জিরো ডিগ্রী’ ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে এবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেলেন তিনি। এ সম্মান প্রাপ্তি সমসাময়িক ব্যস্ততাসহ নানাদিক নিয়ে কথা বলেন বিবার্তার নিজস্ব প্রতিবেদকের সঙ্গে।


বিবার্তা : দ্বিতীয়বারের মতো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেলেন কেমন লাগছে?


মাহফুজ আহমেদ : বিষয়টি অবশ্যই ভালো লাগার। কাজের স্বীকৃতি কার না ভালো লাগে। গতকাল রাতে বিষয়টি জানার পর থেকেই নিজের ভেতর অন্যরকম এক ভালোলাগা কাজ করছে। এর আগে ‘লাল সবুজ’ ছবিতে অভিনয় করে জাতীয় পুরস্কার পেয়েছি। এবার পেলাম নিজের প্রযোজিত ছবিতে। এ পুরস্কার পাওয়া মানেই কাজের দায়িত্ব আরো বহুগুণ বেড়ে যাওয়া।



বিবার্তা : কখনও ভেবেছিলেন নিজের প্রযোজিত ছবিতে অভিনয় করে জাতীয় পুরস্কার পাবেন?

মাহফুজ আহমেদ : সত্যি বলতে ছবিটির জন্য বেশ কষ্ট করতে হয়েছে। পুরোটিমই যথেষ্ট আন্তরিকতা নিয়ে কাজ করেছে। তাই শুটিংয়ের সময়ই ভেবেছিলাম। ভালো একটি ছবি হবে। তবে এ ছবিতে অভিনয়ের জন্য এমন সাফল্য আসবে ভাবিনি।


বিবার্তা : সিনেমায় আপনি মাঝে মাঝে আসেন। নিয়মিত হচ্ছেন না কেন?

মাহফুজ আহমেদ : সব অভিনেতারই যদি প্রতিমাসে একটি ছবি মুক্তি পায় তাহলে তো হবে না। কারণ আমাদের দেশে চলচ্চিত্রের বাজার খুব একটা ভালো অবস্থানে নেই। প্রেক্ষাগৃহও দিন দিন বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। তাই বুঝেশুনেই চলচ্চিত্রে আসি। মাঝে মাঝে আসলেও ভালো একটা ছবি নিয়ে আসার প্রতীক্ষায় থাকি। আমি যে কয়টি ছবিতে অভিনয় করেছি সেগুলো গতানুগতিক ছবির চেয়ে একটু বাইরের। যেভাবে আছি এভাবেই থাকতে চাই। সময় ও সুযোগ বুঝেই চলচ্চিত্রে নির্মাণ এবং অভিনয় করব।



বিবার্তা : ঈদের নাটকের ব্যস্ততা কেমন?


মাহফুজ আহমেদ : ঈদের নাটক নিয়েই তো ব্যস্ততা যাচ্ছে। এটা মূলত টিভি নির্মাতা ও আর্টিস্টদের কাজের মাস। এ সময়টা সবাই কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকে। আমিও রয়েছি। কয়েকটি নাটকে অভিনয় করলাম। নাম মনে নেই। এছাড়াও প্রতিদিনই নতুন নাটকের শুটিংয়ে যেতে হচ্ছে।


বিবার্তা : নিজের পরিচালিত নাটকে অভিনয় করতে কেমন লাগে?


মাহফুজ আহমেদ : অভিনয় আর পরিচালনা একই সঙ্গে আমার কখনোই ভালো লাগে না। তবে চরিত্র অনুযায়ী অভিনেতা না পেলে বাধ্য হয়েই করি। আমাদের এই শিল্পে নির্ভরযোগ্য অভিনেতার খুব অভাব।



বিবার্তা : আপনি প্রথমে অভিনেতা পরে নির্মাতা। কাজের ক্ষেত্রে আমাদের দেশে নির্মাতাদের মধ্যে কতটা পেশাদারিত্ব দেখতে পান?

মাহফুজ আহমেদ : আমাদের দেশে এখনও নির্মাণ কাজে পুরোপুরি পেশাদারিত্ব তৈরি হয়নি। কাজের পরিবেশটা একজন শিল্পীর জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। একজন শিল্পী যখন কাজ করবে তখন তার পরিবেশটা যেমন আরামদায়ক হওয়া জরুরি ঠিক তেমনি নিরাপত্তার ব্যবস্থা থাকাটাও বেশ জরুরি। এটা না হলে শিল্পীর জন্য কাজ করা মানসিকভাবে অনেক চাপের হয়ে দাঁড়ায়। সেটা এখনও হয়নি আমাদের দেশে। যে যার মতো পারছে কাজ করছে।


বিবার্তা/অভি/পলাশ

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (২য় তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com