জবিতে আসন প্রতি লড়বে ১৯ জন
প্রকাশ : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৫:৪১
জবিতে আসন প্রতি লড়বে ১৯ জন
জবি প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) ভর্তি পরীক্ষায় ২ হাজার ৭৬৫টি আসনের বিপরীতে আবেদন করেছে ৫২ হাজার ৮৩৬ জন ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী। তবে গতবারের চেয়ে এবার পরীক্ষার্থী সংখ্যা কমেছে ৩৮ হাজার ৩৮১ জন। ফলে এবার প্রতি আসনের জন্য লড়বে ১৯ জন শিক্ষার্থী।


বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকৌশলী ও রেজিস্ট্রার ওহিদুজ্জামান এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।


প্রকৃত মেধাবী নির্ণয় ও প্রশ্নপত্র ফাঁস ঠেকাতে এবার এই বিশ্ববিদ্যালয়ে এমসিকিউর বদলে লিখিত পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা নেয়া হবে। গত ২৬ এপ্রিল বিশ্ববিদ্যালয়ের ৭৭তম সিন্ডিকেট সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।


এমসিকিউ পদ্ধতি বাতিলের কারণে জবিতে ভর্তিচ্ছুক শিক্ষার্থীদের সংখ্যা কমে যাওয়ার যে আশঙ্কা করা হয়েছিল, তার প্রতিফলন ঘটেছে এবারের আবেদনকারীর সংখ্যায়।


গত বছরের চেয়ে এবার পরীক্ষার্থী কমেছে ৩৮ হাজার ৩৮১ জন। গত বছর মোট ভর্তি পরীক্ষার্থী ছিল ৯১ হাজার ২১৭ জন। আসনপ্রতি শিক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল প্রায় ৩৩ জন। আর এবার সব ইউনিট মিলিয়ে মোট ভর্তি পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৫২ হাজার ৮৩৬। আসনপ্রতি শিক্ষার্থী ১৯.১০ জন।


জবিতে এবার তিন ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষা নেয়া হবে। ইউনিট-১ (বিজ্ঞান শাখা), ইউনিট-২ (মানবিক শাখা) ও ইউনিট-৩ (বাণিজ্য শাখা)। এর মধ্যে ইউনিট-১-এ ৮২৫টি আসন, ইউনিট-২-এ ১২৭০টি, ইউনিট-৩-এ ৫২০টি এবং বিশেষায়িত চারটি বিভাগে (সংগীত, চারুকলা, নাট্যকলা এবং ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন) ১৫০টি আসন রয়েছে।


প্রতিটি ইউনিটে গত ৫ আগস্ট দুপুর ১২টা থেকে ২৭ আগস্ট রাত ১২টা পর্যন্ত প্রাথমিক আবেদন নেয়া হয়। প্রাথমিকভাবে বাছাইকৃত শিক্ষার্থীদের ৩১ আগস্ট দুপুর ১২টা থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর রাত ১২টা পর্যন্ত আবেদন নিশ্চিত করতে হয়।


ইউনিট-১-এ প্রাথমিকভাবে আবেদন করেছিলেন ৪৬ হাজার ৪১৮ জন, তাদের মধ্যে চূড়ান্ত আবেদন করেন ২৬ হাজার ৬২ জন শিক্ষার্থী। গত বছর এ ইউনিটের আবেদনকারী শিক্ষার্থীদের সংখ্যা ছিল ৫৯ হাজার ৪১০ জন।


ইউনিট-২-এ প্রাথমিক আবেদন করেছিলেন ১৬ হাজার ৭১৫ জন। চূড়ান্ত আবেদন করেন ১৪ হাজার ৪৩৮ জন। এই ইউনিটে গত বছর আবেদনকারীর সংখ্যা ছিল ১৮ হাজার ৭৫৬ জন।


ইউনিট-৩-এ প্রাথমিক আবেদন করা ১২ হাজার ৮১৩ জনের মধ্যে চূড়ান্ত আবেদন পাওয়া যায় ১১ হাজার ২০ জন শিক্ষার্থীর। গত বছরে এর সংখ্যা ছিল ১৩ হাজার ৫০।


এই তিন ইউনিটের বাইরে বিশেষায়িত বিভাগগুলোর (সংগীত, চারুকলা, নাট্যকলা এবং ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন বিভাগ) জন্য কোনো লিখিত পরীক্ষা নেয়া হবে না। শুধু বিষয়ভিত্তিক ব্যবহারিক এবং মৌখিক ভর্তি পরীক্ষা নেয়া হবে। এ বছর এই চার বিভাগে ভর্তি পরীক্ষার্থীর সংখ্যা যথাক্রমে ২১৯, ৫৩১, ১৬৮ ও ৩৯৮।


আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর ইউনিট-১ অর্থাৎ বিজ্ঞান শাখার পরীক্ষার মধ্য দিয়ে শুরু হবে জবির ভর্তি পরীক্ষা। ৬ অক্টোবর ইউনিট-২ (মানবিক) ও ১৩ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে ইউনিট-৩ (বাণিজ্য)-এর ভর্তি পরীক্ষা। আর চারুকলাসহ বিশেষায়িত চার শাখায় ব্যবহারিক ও মৌখিক পরীক্ষা নেয়া হবে ২৭ অক্টোবর থেকে।


গত বছরের চেয়ে এবার ভর্তি পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কমার কারণ হিসেবে ওহিদুজ্জামান বলেন, এ বছর এইচএসসি পরীক্ষার্থীয় পাসের হার আগের চেয়ে অনেক কমেছে। এ ছাড়া অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের তুলনায় জবির ভর্তি পরীক্ষায় শিক্ষার্থীদের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার গ্রেট পয়েন্ট বেশি চাওয়া হয়েছে। সে কারণে অনেক শিক্ষার্থী ভর্তির আবেদন করতে পারেনি।


বিবার্তা/আদনান/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com