ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের কর্মসূচি প্রত্যাহার করলো কোটা আন্দোলনকারীরা
প্রকাশ : ৩১ জুলাই ২০১৮, ১৭:৪৭
ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের কর্মসূচি প্রত্যাহার করলো কোটা আন্দোলনকারীরা
ঢাবি প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের কর্মসূচি প্রত্যাহারে ঘোষণা দিয়েছে কোটা সংস্কার দাবিতে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। তবে তাদের দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত নতুন কর্মসূচি পালন করবেন বলে জানানো হয়েছে।


মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) টিএসসির রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে বিক্ষোভ মিছিল পরবর্তী এক সমাবেশে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের প্ল্যাটফর্ম বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল হক নুর এ ঘোষণা দেন।


এসময় নুরুল হক নুর বলেন, কোটা সংস্কার আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা, গ্রেপ্তার, রিমান্ড ও ছাত্রী-শিক্ষকের ওপর নির্যাতনের প্রতিবাদে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের কর্মসূচি আমরা আজ থেকে প্রত্যাহার করে নিলাম। কারণ ছাত্রসমাজের ক্ষতি করে আমরা আন্দোলন করবো না। একদিকে আমাদের পড়াশোনা চলবে, অন্যদিকে ন্যায়ের জন্য আমাদের লড়াই চলবে।


প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে এ সময় নুরুল হক নূর বলেন, প্রধানমন্ত্রী আপনি ছাত্র সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বসুন। যৌক্তিক কথা শুনে ছাত্রদের দাবি অতিদ্রুত মেনে নিন।


প্রধানমন্ত্রীকে কোটা আন্দোলন নিয়ে সঠিক তথ্য দেয়া হচ্ছে না এমন অভিযোগ করে কোটা আন্দোলনের এ নেতা বলেন, মিথ্যা তথ্যের মাধ্যমে ছাত্রদের সরকারের বিপরীতে দাঁড় করিয়ে অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরির চেষ্টা করা হচ্ছে। আমরা আলোচনায় বসতে প্রস্তুত।


নূর বলেন, আমরা কোনো রাজনৈতিক দলের সমর্থন নিয়ে আন্দোলন করিনি। একটি যৌক্তিক দাবিতে বাংলার মেধাবী শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করেছে। যারা আন্দোলনকে রাজনৈতিক ট্যাগ দিচ্ছেন তাদের সঠিক জ্ঞানের অভাব। ছাত্রসমাজ নিয়ে কোনো ধরনের অপপ্রচার করবেন না।


কোটা সংস্কার নিয়ে প্রহসন হচ্ছে উল্লেখ করে নূর বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার অনেক দিন পরে কমিটি গঠন করা হলেও নাটকীয়ভাবে ৯০দিন সময় বৃদ্ধি করা হয়েছে। সামনে জাতীয় নির্বাচন। এসময় সরকার কোনো ধরনের আইন পাস করতে পারবে না। ফলে কোটা সংস্কার হবে না। আমরা কোটার সংস্কার না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাব।


আরেক যুগ্ম-আহ্বায়ক আতাউল্লাহ বলেন, আমরা শুরু থেকেই অহিংসভাবে কর্মসূচি পালন করে আসছি। আমাদের জীবন গেলেও অহিংস আন্দোলন চালিয়ে যাব। আমাদের মধ্যে থেকে যারা সহিংসতা চালাবে তাদের অনুপ্রবেশকারী হিসেবে চিহ্নিত করব।


এর আগে তিন দফা দাবিতে বেলা সাড়ে ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে থেকে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীরা একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মিছিলটি ডাকসু, কলাভবন, ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ, সিনেট ভবন, স্মৃতি চিরন্তন, টিএসসি, শহীদ মিনার, দোয়েল চত্বর, বাংলা একাডেমী হয়ে টিএসসিস্থ সন্ত্রাস বিরোধী রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এসে শেষ হয়।


প্রসঙ্গত, আন্দোলনকারীদের তিন দফা দাবি হলো- কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের পাঁচ দফার আলোকে কোটার যৌক্তিক সংস্কার করতে হবে, নিরাপদ ক্যাম্পাসের স্বার্থে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের উপর চিহ্নিত হামলাকারীদের বিচার করতে হবে এবং গ্রেপ্তারকৃত আন্দোলনকারীদের নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে।


বিবার্তা/রাসেল/কাফী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com