জবিতে বিশ্বকাপ ফুটবলের উন্মাদনা
প্রকাশ : ২৬ মে ২০১৮, ১৯:৫৪
জবিতে বিশ্বকাপ ফুটবলের উন্মাদনা
জবি প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮ শুরু হতে বাকি আর মাত্র তিন সপ্তাহ। চায়ের দোকান থেকে শুরু করে অলি-গলিতে বিরাজ করছে বিশ্বকাপের আমেজ। সরকারি- বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে বিশ্বকাপের উন্মাদনা যেন আরো বেশি। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়েও বিরাজ করছে বিশ্বকাপ ফুটবলের আনন্দ।


বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ভবনে ইতিমধ্যে আর্জেন্টিনা, ব্রাজিলসহ জনপ্রিয় বিভিন্ন ফুটবল দলের পতাকা উড়িয়ে দিয়েছেন সমর্থক শিক্ষার্থীরা। সমর্থকদেরকে একত্রিত করার জন্য শিক্ষার্থীরা ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে গ্রুপ তৈরি করে ফেলছেন। নিজ নিজ সমর্থকদেরকে যেমন অনেকটা আপন করেও নিয়েছেন তেমনি বিরোধীদলীয় সমর্থকদেরকে সমালোচনাও চলছে ঝড়ের গতিতে।


একে অপরের প্রতি তীব্র সমালোচনার মাধ্যমেই জমে উঠছে জবির বিশ্বকাপ উন্মাদনা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরব উপস্থিতি জবি শিক্ষার্থীদের তারা নিজেদের দলের অতীত ঐতিহ্য যেমন তুলে ধরে নিজেদের শ্রেষ্ঠ দাবি করছে, তেমনি বিরোধী দলের কলঙ্কিত অধ্যায় তুলে ধরে অবজ্ঞা করতেও ভুল করছে না। এভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তারা তর্কযুদ্ধে মেতে উঠেছেন তারা।



গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ব্রাজিল সমর্থক সুমন বলেন, সব মাঠে নামবে বিশ্বকাপ খেলায় অংশগ্রহণ করার জন্য ব্রাজিল নামবে ৬ষ্ঠ বারের মত কাপ নেয়ার জন্য। বিশ্বকাপে এবার ফেবারিট টিম যেমন ব্রাজিল তেমনি জবিতেও ব্রাজিল ফেবারিট।


মেহেদী হাসান আবির নামের এক আর্জেন্টাইন সমর্থক বলেন, বর্তমান বিশ্বের সেরা খেলেয়ার মেসি আর্জেন্টিনা দলে। তাই আর্জেন্টিনার সমর্থন ছাড়া বিশ্বকাপ কল্পনা করা যায় না। আর আর্জেন্টাইন সমার্থকরা কখনো কাপ দেখে দলকে সমর্থন করে না। আমরা খেলা দেখে দল সমর্থন করি।এবারের বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার ফুটবল যাদু গোটা পৃথিবী দেখবে আশা করছি। আর এ যাদুর নেতৃত্ব দিবে এ গ্রহের শ্রেষ্ঠ ফুটবলার লিওনেন মেসি।


জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বেশিভাগই আর্জেন্টাইন ও ব্রাজিলীয় বলে দাবি শিক্ষার্থীদের। গত বৃহস্পতিবার সাংবাদিকতা বিভাগের দশম ব্যাচের শিক্ষার্থীদদের মধ্যে ভোটাভুটি হয়ছে; তাতে ব্রাজিল সবচেয়ে এগিয়ে আছে!


এদিকে জবির ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের ব্রাজিল এবং আর্জেন্টাইন সমর্থকরা যথাক্রমে ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগ ব্রাজিল সমর্থক গোষ্ঠী এবং নিখিল বাংলা আর্জেন্টাইন সমর্থক (নিবাস) নামে দুইটি রম্য কমিটিও করেছে।



এছাড়া জবির বিভিন্ন রুটে যাতায়াত করা বাসের শিক্ষার্থীরাও নিজেদের মধ্যে নিজের প্রিয়দলের সাপোর্টে তর্কযুদ্ধে জড়িয়ে পরছে প্রতিনিয়তই। তবে এসব রীতিমত বিনোদনের খোরাক যোগাচ্ছে ক্যাম্পাসের সর্বত্র। আর ব্যাপারগুলো নেহায়েৎ স্বাভাবিক রম্যভাবেই নিচ্ছেন বাকি শিক্ষার্থীরা।


বিবার্তা/আদনান/কামরুল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com