কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিলবোর্ড নিয়ে তোলপাড়
প্রকাশ : ২৪ নভেম্বর ২০১৭, ২১:২২
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিলবোর্ড নিয়ে তোলপাড়
কুমিল্লা প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের গেইটে লাগানো বিতর্কিত বিলবোর্ড নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। বৃহস্পতিবার রাতের অন্ধকারে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান গেইটসহ কয়েকটি স্থানে 'গুড লাক' নামে বিজ্ঞাপন দিয়ে নিম্নমানের বিলবোর্ড বসানো হয়। একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে এমন বিতর্কিত নামফলক দেখে ক্ষুব্ধ হয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।


তবে কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে কিছু জানে না বলে মন্তব্য করেছেন। একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষকে না জানিয়ে বিলবোর্ড স্থাপন করা কিভাবে সম্ভব তা অনেকেরই বোধগম্য নয়।


খোঁজ নিয়ে জানা যায়, শুক্রবার সকালে সামাজিক যোগামাধ্যমে বিতর্কিত বিলবোর্ড নিয়ে ফেসবুকে কয়েকটি ছবি পোস্ট করা হয়। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে শিক্ষার্থীরা। মেইন গেইটে এমন বিতর্কিত দৃষ্টিকটু বিলবোর্ড স্থাপন করায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃর্তপক্ষের রুচি নিয়ে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন।


এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের এস্টেট শাখার সহকারী রেজিস্ট্রার মোঃ মিজানুর রহমান বলেন, এই বিষয়টি আমার আওতাধীন হলেও আমি এই বিলবোর্ডগুলো লাগানোর ব্যাপারে কিছুই জানি না। বিলবোর্ডগুলো কখন, কিভাবে লাগানো হয়েছে আমি কিছুই বলতে পারছি না।


কুবি উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ আলী আশরাফ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে কিছু সৌন্দর্য্য বর্ধনের কাজ করার কথা, কিন্তু ফটকগুলোতে এ ধরনের বিলবোর্ড লাগানোর ব্যাপারে কোনো কথা হয়নি। আমি এই বিষয়ে খোঁজ নিচ্ছি।


এদিকে ফেসবুকে চলছে সমালোচনার ঝড়। সাদী খান নামে এক শিক্ষার্থী বলেন, ফাজলামির একটা সীমা আছে। প্রশাসনের ভালো গেইট করার মুরোদ নেই সেটা আমাদের জানা আছে। কিন্তু এই নিম্নমানের বিজ্ঞাপনী গেইটের মানে কি? ক'দিন পর ভর্তি পরীক্ষা। পরীক্ষা দিতে এসে এই গেইট দেখে ছেলেমেয়েরা হাসাহাসি ছাড়া আর কিছুই করবেনা। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতি বিন্দুমাত্র ভালোবাসা থাকলে প্রশাসন এই কাজ করতে পারতো না।


মেহেদী হাসান নামে আরেক শিক্ষার্থী লিখেন, পাবলিক ভার্সিটির মেইন গেট যদি স্পন্সর দিয়ে বানাতে হয় তাহলে কতটা কমার্শিয়াল চিন্তা চেতনা ধারণ করেন আপনারা ভেবে দেখেছেন?


উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার রাতের আধাঁরে বিতর্কিত গুডলাক স্টেশনারীর বিজ্ঞাপন দিয়ে বিলবোর্ডটি বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক, বিবিএ ফ্যাকাল্টি, শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হল, কাজী নজরুল ইসলাম হল, নওয়াব ফয়জুন্নেসা চৌধুরাণী হল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল ও উপাচার্যের বাসভবনের সামনে লাগানো হয়েছে।


বিবার্তা/বাবর/শাহনেওয়াজ

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com