আবরার হত্যার দ্রুত বিচার চায় ছাত্রলীগ
প্রকাশ : ০৯ অক্টোবর ২০১৯, ১৫:৪৭
আবরার হত্যার দ্রুত বিচার চায় ছাত্রলীগ
ঢাবি প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যার দ্রুত বিচার চেয়েছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।


বুধবার (৯ অক্টোবর) দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) মধুর ক্যান্টিনে আবরারের মর্মান্তিক হত্যাকাণ্ডে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে এবং অপরাধীদের দ্রুত বিচারের দাবিতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় দ্রুত বিচার দাবি করেন।


জয় বলেন, আমরা দাবি জানাই দ্রুত সময়ের মধ্যে আবরার হত্যাকাণ্ডের বিচার সম্পন্ন করার জন্য। এই হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িতদের যেন সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করা হয়। ছাত্রলীগ কখনোই সন্ত্রাসকে প্রশ্রয় দেয় না। ছাত্রলীগের সাথে জড়িত কেউ ব্যক্তি উদ্যোগে কোনো অন্যায় করলে বিচারের হাত থেকে রক্ষা পাবে না।


আবরার হত্যার ঘটনায় ছাত্রলীগ লজ্জিত উল্লেখ করে ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বলেন, ‘এই অপরাধ সংঘটিত হওয়ার পর আমাদের দলের যাদের সংশ্লিষ্টতা রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এর পাশাপাশি আইনগত ব্যবস্থাও নেয়া হয়েছে। দেশের বৃহৎ এই সংগঠনে অপরাধীর কোনো স্থান হবে না।'


আবরার হত্যা নিয়ে একটি কুচক্রী মহল ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করার চেষ্টা করছে জানিয়ে তিনি বলেন, আমাদের এ বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে যাতে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে না পারে। বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করা, ধর্মীয় উন্মাদনা সাম্প্রদায়িকতার অস্থিরতা তৈরির চেষ্টা করে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশকে হেয় করার চেষ্টা করছে কিনা, সেব্যাপারে সজাগ থাকতে হবে।


এ সময় ছাত্রসংগঠনের গুরুত্ব সম্পর্কে তিনি বলেন,'বুয়েটের ছাত্রদের আট দফা দাবির সঙ্গে আমরা একাত্মতা জানিয়েছি। তবে বৃহত্তম ছাত্র রাজনীতি দলের প্রতিনিধি হিসেবে আমরা কখনো বলতে পারি না, ছাত্র সংগঠনকে নিষিদ্ধ করা হোক। ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধের বিষয়ে আমরা কোনো মতেই একমত হতে পারি না।'


বুয়েটে ছাত্রলীগের কমিটি স্থগিতের বিষয়ে ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য বলেন, 'বুয়েটের ঘটনায় খেয়াল করে দেখবেন, এখানে কিন্তু শাখা ছাত্রলীগের উদ্যোগে কিছু হয়নি। শুধু কয়েকজন ব্যক্তির সংশ্লিষ্টতা রয়েছে। আমরা তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিয়েছি।’


বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলোতে গেস্টরুম কালচার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, 'বিভিন্ন হলে যখন প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী আসেন। শিক্ষার্থীদের রাজনৈতিক পরিকল্পনা শিখন কর্মশালা হিসেবেই গেস্ট রুম প্রথম চালু হয়েছে। সুতরাং এটাকে নেগেটিভ হিসেবে ব্যবহার করাটা অবশ্যই খারাপ।'


উল্লেখ্য, রবিবার (৬ অক্টোবর) মধ্যরাতে বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। ওইদিন মধ্যরাতে বুয়েটের শেরেবাংলা হলের নিচতলা ও দোতলার মাঝামাঝি সিঁড়ি থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। আর এ হত্যার ঘটনায় বুয়েটসহ সারাদেশে প্রতিবাদের ঝড় বইছে।


বিবার্তা/রাসেল/জাই

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com