তোমারই হোক জয়
প্রকাশ : ২৪ অক্টোবর ২০১৬, ২০:০৫
তোমারই হোক জয়
প্রিন্ট অ-অ+

মহাসমারোহে অুনষ্ঠিত হয়ে গেল দেশের প্রধান দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলন। এতে সভাপতি পদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পুনর্নির্বাচিত হলেও সাধারণ সম্পাদক পদে এসেছে নতুন নেতৃত্ব। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শুধু নতুন সাধারণ সম্পাদক করেই ক্ষান্ত হননি, আহবান জানিয়েছেন তিনি জীবিত থাকতেই তাঁর পদেও নতুন কাউকে আনার। সঙ্গত কারণেই ডেলিগেটরা এতে রাজি হননি। রাজি না-হওয়ায় স্বাভাবিক। অনেক ভাঙ্গাগড়ার মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগকে আজকের পর্যায়ে নিয়ে আসার যিনি মূল কারিগর, তিনিই শেখ হাসিনা। তাঁকে বাদ দেয়ার কথা ভাবতেও পারেন না দলের একজন সাধারণ কর্মীও।


‘অনেক ভাঙ্গাগড়ার’ প্রসঙ্গ যখন এলোই তখন বলতে হয়, সেই ১৯৪৯ সালের ২৩ জুন আজকের রাজধানী ঢাকার গোলাপ উদ্যান (রোজ গার্ডেন) নামের এক বাড়িতে জন্ম হয় আওয়ামী লীগের। আর তার অর্ধ শতাব্দীরও বেশিকাল পরে এসে একটি সত্যিকার উদ্যানে (সোহরাওয়ার্দী) ২০তম জাতীয় সম্মেলন বা কাউন্সিল করলো দলটি।


মাঝখানে পদ্মা-মেঘনা-যমুনা-সুরমা দিয়ে বয়ে গেছে কত জল। কত দমনপীড়ন, হামলা, মামলা, হুলিয়া। মহান মুক্তিযুদ্ধ। বীরের রক্তস্রোত, মায়ের অশ্রুধারা। কত আগুন, উজাড় কত গ্রামের পর গ্রাম। এমন খাণ্ডবদাহন পেরিয়ে এই আওয়ামী লীগের নেতৃত্বেই তো জাতি পেয়েছে স্বাধীনতা, স্বতন্ত্র আত্নপরিচয়, বিজয়ের চিরউড্ডীন চিরঅমলিন জাতীয় পতাকা।


তারপরেও দুর্দিন কাটেনি আওয়ামী লীগের। স্বাধীনতা লাভের মাত্র সাড়ে তিন বছরের মাথায় জাতি হারালো তাদের পিতাকে। দিশেহারা জাতির ঘাড়ে চেপে বসলো অনির্বাচিত নেতৃত্ব। দলের প্রাণপুরুষ, জাতির পিতাকে হারিয়ে আওয়ামী লীগও হয়ে পড়লো মরুপথে জলধারা হারিয়ে যাওয়া নদীর মতো – শুষ্ক, গতিহীন।


সেই গতিহীন নদীতে জোয়ার আনার মহান দায়িত্ব নিয়ে দলের নেতাকর্মীরা প্রবাস থেকে ফিরিয়ে আনলো শেখ হাসিনাকে। তারুণ্যের শক্তিমত্তা দিয়ে তিনি জয় করলেন আপন অনভিজ্ঞতাকে।


তারপরের ইতিহাস সবার জানা। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ১৯৯৬ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের জয়যাত্রা শুরু। তারপরের ইতিহাস শুধু বিজয়ের। যদিও এর মাঝখানে ১/১১এর মতো দুর্বিপাক গেছে। গ্রেনেড হামলার মতো নারকীয় ঘটনাও ঘটেছে। কিন্তু শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ বারবারই পৌরাণিক ফিনিক্স পাখির মতো ধ্বংসস্তুপ থেকে ফের মাথা তুলে দাঁড়িয়েছে।


শুধু নিজেই দাঁড়ায়নি, দেশকেও দাঁড় করিয়ে দিয়েছে এক উজ্জ্বল বর্তমান ও অপার সম্ভাবনাময় ভবিষ্যতের দ্বারপ্রান্তে। বাংলাদেশ আজ দারিদ্র্য বিমোচনে বৈশ্বিক মডেল। বাংলাদেশ আজ ডিজিটাল দেশ। লোডশেডিংয়ের অভিশাপ থেকে এদেশ আজ মুক্ত। খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ তো বটেই, এমন কী স্বল্প পরিমাণে হলেও খাদ্য রফতানিকারক এই দেশ।


এমন শত শত সাফল্যের নজির দেয়া যায়। সব সাফল্য এসেছে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের হাত ধরে।


সেই আওয়ামী লীগ যখন ২০তম জাতীয় সম্মেলন করে, তাকায় আরো সুন্দর উজ্জ্বল ও মহিমান্বিত ভবিষ্যত রূপকল্পের পানে, তখন অসংখ্য অনুচ্চারিত আশাবাদে দীপ্ত হয়ে ওঠে আমাদের মনপ্রাণ। আমরা সর্বান্তকরণে বলি : এগিয়ে চলো আওয়ামী লীগ। তোমারই হোক জয়।


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com