সিংহভাগ সিসেম ও সীতা
প্রকাশ : ২৩ জুলাই ২০১৭, ০৮:৪৪
সিংহভাগ সিসেম ও সীতা
জিয়াউদ্দিন সাইমুম
প্রিন্ট অ-অ+

সিংহভাগ বাংলা ভাষায় পরিচিত একটি শব্দ। এর অর্থ অধিকাংশ কিংবা প্রায় সবটা। শব্দটি ইংরেজি Lion’s Share বাক্যভঙ্গির অনুবাদ। ইংরেজরা ঈশপের গল্প থেকে এ বাক্যভঙ্গিটা গ্রহণ করেছে। যা পরে বাংলাভাষায় স্থান নেয়।


এক সিংহ এবং শেয়াল একত্রে একটা হরিণ শিকার করল। ভাগ করার সময় শেয়াল কিছু বলতে চাইলে সিংহ ধমক দেয়: সারাক্ষণ খাই-খাই করো না। চুপ করে বসে দেখ। আমি রাজা, অন্যায্য কিছু করব না।


সিংহ হরিণটাকে সমান তিনভাগে ভাগ করে শেয়ালকে বলল: পণ্ডিত, ঠিক আছে তো!


শেয়াল: আমরা তো দুইজন, ভাগ তিনটা কেন?


সিংহ: তোমাকে তো আমরা পণ্ডিত বলে জানি। এখন বুঝলাম, তোমার জ্ঞান আছে কিন্তু কাণ্ডজ্ঞান নেই। শোন, প্রথম ভাগটা আমার, কারণ আমি পশুরাজ। দ্বিতীয় ভাগটা শিকারে আমি যে শ্রম দিয়েছি তার পারিশ্রমিক। তৃতীয় ভাগটা নিশ্চয় তুমি আশা করে আছ; সেটাই উচিত। এটা তোমার কিন্তু ভাগটা তুমি আমার সামনে থেকে নেবে কীভাবে? রাজা হিসেবে তো কমপক্ষে চার-পঞ্চমাংশ নজরানা দিয়ে দিতে হবে, নাকি!


এদিকে বাংলা একাডেমির অভিধানে বলা হয়েছে ‘সিসেম’ শব্দের দুটো অর্থ দেয়া হয়েছে। প্রথমত পশ্চিম এশীয় লোকগাথায় পাহাড়ের অধিষ্ঠাত্রী দেবী। দ্বিতীয়ত, আরব্য উপন্যাসে বর্ণিত এমন মন্ত্র বা শব্দ যা উচ্চারণকালে দরজা আপনি খোলে ও বন্ধ হয়, দ্বার খোলা ও বন্ধ করার মন্ত্র (এতক্ষণে সিসেম খুলল- শওকত ওসমান; তাই তিনি সখেদে ‘সিসেম ফাঁক’ রচনায় বলেছেন ‘গরীবের কথা বাসি হইলে ফলে; আমার কথাও (১০/১২ বৎসরের) বাসি হইয়া ফলিয়াছে’- বেগম রোকেয়ার রচনায় লোকজ জীবন অভিজ্ঞতা, গীতা দাস; মনে হল আলীবাবার কাহিনীর সেই বিস্ময়কর ‘সিসেম ফাঁক’-এর মতো ঘটনাটি বুঝি ঘটল- পরিযায়ী পাখিদের ডানা, আলী ইমাম)। অভিধানটির মতে শব্দটি ফারসি।


আর সংস্কৃত সীতা শব্দের মূল অর্থ হলরেখা। চলতি অর্থে সীতা বলতে রামায়ণোক্ত রামের স্ত্রী জানকী (সীতা বাষ্পপরিপ্লুত লোচনে করুণ বচনে বলিলেন- ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর; যখন সীতা রামসহবাসে এই বনে থাকিতেন, তখন জনস্থানবনদেবতা বাসন্তীর সহিত তাঁহার সখিত্ব হইয়াছিল- উত্তরচরিত, বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়; রাবণের ঘরে সীতা লোভের দ্বারা বন্দী, রামের ঘরে সীতা প্রেমের দ্বারা মুক্ত, সেখানেই তাঁর সত্য প্রকাশ- অবতরণিকা, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর; সীতা পৃথিবীর কন্যা, হলরেখার মুখে কুড়িয়ে পাওয়া কৃষ্ণা যজ্ঞসম্ভবা- যাভাযাত্রীর পত্র, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর)।


বাংলায় সীতাদুঃখ বলতে অতিশয় দুঃখ বোঝায়। সীতা শব্দের গঠন হচ্ছে সংস্কৃত সি + ত + আ।


লেখাটি লেখকের ব্লগ থেকে নেয়া


বিবার্তা/জিয়া


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com